দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

সরকারি বাস হাতে গোনা, কলকাতা যেতে গিয়ে দুর্ভোগে বর্ধমানের বাসিন্দারা

সরকারি বাস হাতে গোনা, কলকাতা যেতে গিয়ে দুর্ভোগে বর্ধমানের বাসিন্দারা

যাত্রী বাড়লেও কলকাতা যাওয়ার সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়েনি। ফলে বর্ধমান থেকে কলকাতার উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বেরিয়ে বাস না পেয়ে দুর্ভোগে নাজেহাল হচ্ছেন যাত্রীরা

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: যাত্রী বাড়লেও কলকাতা যাওয়ার সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়েনি। ফলে বর্ধমান থেকে কলকাতার উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বেরিয়ে বাস না পেয়ে দুর্ভোগে নাজেহাল হচ্ছেন যাত্রীরা। বর্ধমানের উল্লাস বাসস্ট্যান্ডে টিকিট কেটে বাসের জন্য যাত্রীদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে। বাসিন্দারা বলছেন, দিন দিন যাত্রীর সংখ্যা বাড়ছে। কিন্তু বাসের সংখ্যা হাতে গোনা কয়েকটি। তার ফলে ভোগান্তির একশেষ হচ্ছেন যাত্রীরা।

সোমবারও যে বাড়তি সংখ্যক সরকারি বাস মিলবে এমন কোনও নিশ্চয়তা বাস স্ট্যান্ড থেকে পাচ্ছেন না যাত্রীরা। সোমবার থেকে যাত্রী সংখ্যা অনেকটাই বাড়বে। তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়ানো না হলে দুর্ভোগ অনেকটাই বাড়বে বলেই মনে করছেন তাঁরা। বর্ধমান থেকে ধর্মতলা ও বর্ধমান করুণাময়ী রুটে সরকারি বাস চলে। গত কয়েক বছরে এই দুই রুটে যাত্রী সংখ্যা বেড়েছে অনেকটাই। তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ানো হয়েছিল সরকারি বাসের সংখ্যাও। ভোর থেকে রাত পর্যন্ত আধ ঘণ্টা অন্তর এই রুটে কলকাতা যাওয়ার বাস মেলে। অন লাইনে সেসব বাসের বুকিং হচ্ছিল। সরকারি বাসের উপর নির্ভরতা এতটাই বেড়েছিল যে আগাম টিকিট না কাটলে বাসের আসন পাওয়ার নিশ্চয়তা ছিল না। লকডাউন পর্ব কাটিয়ে এখন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসছে বর্ধমান। কাজের তাগিদে অনেককেই এখন নিয়মিত কলকাতা বা সল্টলেক যেতে হচ্ছে। লোকাল ট্রেন না চলায় সরকারি বাসই এখন কলকাতা যাওয়ার অন্যতম ভরসা। অথচ এই দুই রুটে এখনও সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়ানো যায়নি। ফলে যাত্রীদের রোদ বৃষ্টি  মাথায় নিয়ে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে।

বর্ধমান ধর্মতলা রুটে চারটি বাস চলাচল করছে। অন্য দিকে, বর্ধমান করুনাময়ী রুটে চলছে মাত্র দুটি বাস। বাসিন্দারা বলছেন, গত কয়েকদিনে যাত্রী সংখ্যা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। কিন্তু সেই অনুপাতে বাসের সংখ্যা না বাড়ায় দীর্ঘ অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে দুর্ভোগে নাজেহাল হতে হচ্ছে। অনেকেই সময়ে কর্মক্ষেত্রে পৌঁছতে পারছেন না। ফেরারও কোনও নিশ্চয়তা থাকছে না। আগামী সোমবার থেকে অনেক সরকারি-বেসরকারি অফিস বেশি কর্মী নিয়ে খুলে যাবে। অফিসে পুরোদমে কাজ শুরু হবে। ফলে যাত্রী সংখ্যা অনেকটাই বেড়ে যাবে। তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়ানো না হলে দুর্ভোগের পড়তে হবে যাত্রীদের। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বেশ কিছু সরকারি বাস বাইরের রাজ্য থেকে আসা পরিযায়ী শ্রমিকদের পৌঁছে দেওয়ার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। তবে যাত্রীদের প্রয়োজনের কথা মাথায় রেখে সরকারি বাস বাড়ানো হবে।

Saradindu Ghosh

Published by: Rukmini Mazumder
First published: June 6, 2020, 11:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर