দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

পরিযায়ী শ্রমিকদের খাদ্য সামগ্রী আত্মসাতের চেষ্টা! গ্রেফতার রেশন ডিলার

পরিযায়ী শ্রমিকদের খাদ্য সামগ্রী আত্মসাতের চেষ্টা! গ্রেফতার রেশন ডিলার

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, রেশনে খাদ্য সামগ্রী বন্টনে কোনও রকম দুর্নীতি বরদাস্ত করা যাবে না। মেমারি ঝিকড়া গ্রামের রেশন ডিলার টেম্পোরারি কুপন নিজের কাছে রেখে দিয়েছিলেন কিনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ কুপন নিজের কাছে রেখে দিয়েছিলেন রেশন ডিলার। অভিযোগ জমা পড়তেই সেই রেশন ডিলারকে গ্রেফতার করল পুলিশ। পূর্ব বর্ধমান জেলার মেমারি থানার ঝিকড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। এর আগে গলসিতেও রেশনে খাদ্য সামগ্রী মিলছে না বলে অভিযোগ উঠেছিল। সেখানে বিডিও অফিস থেকেই রেশনের কুপন রাজনৈতিক নেতার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। মেমারির পরিযায়ী শ্রমিকদের অভিযোগ, তাদের জন্য সরকার যে টেম্পোরারি কুপনের ব্যবস্থা করেছিল তা তাদের হাতে দেওয়া হচ্ছে না। সেই অভিযোগ পাওয়ার পরই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন।

বাইরের রাজ্য থেকে ঘরে ফেরা পরিযায়ী শ্রমিকরা মঙ্গলবার মেমারি দু'নম্বর বিডিও অফিসে যান। সেখানে গিয়ে তারা অভিযোগ জানান অনেক পরিযায়ী শ্রমিকই টেম্পোরারি কুপন পাননি। বিডিও অফিসে অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে গিয়ে বিক্ষোভও দেখান তাঁরা। এরপর সেখান থেকে তারা রেশন ডিলারের বাড়িতে গিয়েও বিক্ষোভ দেখান। এরপরই বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়ে যায়। পরিযায়ী শ্রমিকদের কাছ থেকে অভিযোগের কথা শুনে মেমারি  ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মামনি মুর্মু রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে মেমারি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই বুধবার মেমারি থানার পুলিশ মেমারি দু'নম্বর ব্লকের ঝিকড়া গ্রামের অভিযুক্ত রেশন ডিলার বিজয় কুমার ঘোষকে গ্রেফতার করে। তাকে চার দিন পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

সব পরিযায়ী শ্রমিক যাতে বিনামূল্যে রেশনের খাদ্য সামগ্রী পায় তা নিশ্চিত করতে তাদের জন্য টেম্পোরারি কুপনের ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। জেলা খাদ্য দফতর থেকে ব্লকে ব্লকে পরিযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা অনুযায়ী সেই টেম্পোরারি কুপন পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।এই টেম্পোরারি কুপন দেখিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের মাথা পিছু মাসে পাঁচ কেজি করে চাল ও পরিবার পিছু এক কেজি করে ছোলা পাওয়ার কথা। কিন্তু সেই টেম্পোরারি কুপন হাতেই আসছে না বলে অভিযোগ তোলেন পরিযায়ী শ্রমিকরা।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, রেশনে খাদ্য সামগ্রী বন্টনে  কোনও রকম দুর্নীতি বরদাস্ত করা যাবে না। মেমারি ঝিকড়া গ্রামের রেশন ডিলার টেম্পোরারি কুপন নিজের কাছে রেখে দিয়েছিলেন কিনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Published by: Pooja Basu
First published: July 2, 2020, 1:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर