রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের চেয়েও বড় অভিনেতা, কালনায় কটাক্ষ সোহমের

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের চেয়েও বড় অভিনেতা, কালনায় কটাক্ষ সোহমের
‘‘চোখের জল মুছতে মুছতে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি নিয়ে বেরিয়ে গেলেন। আর তার পরদিনই বিজেপিতে গিয়ে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নামেই কুৎসা করছেন। এর চেয়ে বড় অভিনেতা আর হয় নাকি!’’

‘‘চোখের জল মুছতে মুছতে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি নিয়ে বেরিয়ে গেলেন। আর তার পরদিনই বিজেপিতে গিয়ে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নামেই কুৎসা করছেন। এর চেয়ে বড় অভিনেতা আর হয় নাকি!’’

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: পরিচালক প্রযোজকদের আর ভাল অভিনেতার জন্য হাপিত্যেশ করতে হবে না। কারণ রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়রা আমাদের চেয়েও অনেক বড় অভিনেতা। বুধবার পূর্ব বর্ধমানের কালনায় এমনই মন্তব্য করলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের রাজ্য সহ-সভাপতি তথা চলচ্চিত্র অভিনেতা সোহম। এ দিন মন্দির শহর কালনায় তৃণমূল কংগ্রেসের নির্বাচনী জনসভা ছিল। কালনা বাস স্ট্যান্ডে আয়োজিত সেই জনসভায় বক্তব্য রাখেন সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার ও সোহম। উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ-সহ দলের জেলা নেতারা।


বক্তব্য রাখতে গিয়ে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সহ সভাপতি সোহম বলেন, আমাদের বন্ধু পরিচালক, প্রযোজকদের বলব ভাল অভিনেতার জন্য হাপিত্যেশ করার আর কোনও প্রয়োজন নেই। কারণ রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের চেয়েও বড় অভিনেতা। তা না হলে চোখের জল মুছতে মুছতে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি নিয়ে বেরিয়ে গেলেন। আর তার পরদিনই বিজেপিতে গিয়ে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নামেই কুৎসা করছেন। এর চেয়ে বড় অভিনেতা আর হয় নাকি! তাই বন্ধু পরিচালক প্রযোজকদের বলছি, তোমাদের আর ভাল অভিনেতা পাওয়ার জন্য চিন্তা করতে হবে না। না পেলে বলো। আমি তোমাদের ভাল অভিনেতার খোঁজ দেব, ফিল্মে কাজ করার জন্য।

সোহম বলেন, বিজেপির কোনও উন্নয়নের দিশা নেই। তাই তাঁরা তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-নেত্রীদের নামে কুৎসা করে বেড়াচ্ছেন। বিজেপি কোনও উন্নয়নের কাজ করেনি। আমফান থেকে শুরু করে বহু ঘূর্ণিঝড় রাজ্যের ওপর আছড়ে পড়েছে। করোনার মতো মহামারী এসেছে। বিজেপি নেতাদের দেখা মেলেনি। আর এখন ভোট আসতেই পরিযায়ী নেতারা এ রাজ্যে উড়ে আসছেন। তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, গত দশ বছরে এ রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে সব উন্নয়ন প্রকল্প চালু করেছেন সে গুলি বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তুলে ধরাই এখন আমাদের একমাত্র কাজ হওয়া উচিত।

বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কালনা বিধানসভা এলাকা। এই লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ সুনীল কুমার মন্ডল তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। বক্তব্য রাখতে গিয়ে সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার বলেন, এখানকার যিনি সাংসদ রয়েছেন তিনি দিল্লিতে তাঁর ফ্ল্যাট ভাড়া দিয়ে দিয়েছেন। রান্নাঘর গ্যারেজ সবই তিনি নিয়মের বাইরে গিয়ে ভাড়া দিয়ে দিয়েছেন। তিনি এখন বিজেপি করার জন্য তৃণমূল কর্মীদের ফোন করে হুমকি দিচ্ছেন। কাকলি ঘোষ দস্তিদার বলেন, পঁয়ত্রিশটি পদে থাকা সত্বেও শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেসে কাজ করতে পারেননি। কারণ তাঁর সতেরো খানা হোটেল, সত্তরটি ট্রলার, সাতশো আশিটি নামে-বেনামে সম্পত্তি রয়েছে। সে সব দেখাশোনা করতেই তাঁর সময় চলে গিয়েছে। সে জন্যই তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে সময় দিতে পারেননি।

Published by:Simli Raha
First published: