এ এক অন্যরকম বৃদ্ধাশ্রম, মানুষ নয় এখানে থাকে গবাদিপশুরা !

এ এক অন্যরকম বৃদ্ধাশ্রম, মানুষ নয় এখানে থাকে গবাদিপশুরা !

কেউ বিকলাঙ্গ। পথ দুর্ঘটনায় কেউ পা হারিয়েছে। কেউ আবার চোখে দেখতে পায়না।

  • Share this:

#পুরুলিয়া: কেউ বিকলাঙ্গ। পথ দুর্ঘটনায় কেউ পা হারিয়েছে। কেউ আবার চোখে দেখতে পায়না। জীবনভর পরিশ্রম করে বেলাশেষে আর নিজের বোঝা টানতে পারছে না কেউ কেউ। মালিক আর তাকে কাছে রাখতে চায়নি। অবহেলায় সাক্ষাৎ মৃত্যুর হাত থেকে তাদের বাঁচিয়ে রেখেছে এক অন্যরকম বৃদ্ধাশ্রম। মানুষ নয়। গবাদিপশুদের জন্য এই বিশেষ বৃদ্ধাশ্রম। এখানে মেলে খাওয়াদাওয়া, চিকিৎসা পরিষেবা। জানেন কি রাজ্যের কোথায় আছে এমন শতাব্দীপ্রাচীন ব্যতিক্রমী বৃদ্ধাশ্রম? খুব বেশি খুঁজে পাওয়া যাবে না ।

বয়স হলেই বাতিলের দলে। জীবনের এই নিয়ম থেকে ব্যতিক্রম নয় গবাদিপশুরাও। সারা জীবন যাদের কাজে হাল চাষ করে সাহায্য করে তারা, জীবন সায়াহ্নে সেই চাষিদের কাছেই ব্রাত্য হয়ে যায়। কখনও তাদের পথে ফেলে চলে যায় মালিকরা। আবার কখনও দুর্ঘটনায় রাস্তায় একা পড়ে মৃত্যুর দিন গোনে গোরু, ষাঁড়, বাছুররা।

তাদের জন্যই ব্যতিক্রমী এই বৃদ্ধাশ্রম। আবাসিক বলতে গরু, ষাঁড়, গাই, বাছুর। এদের নিয়েই পুরুলিয়া শহরের বরাকর রোডে একুশ নম্বর ওয়ার্ডে তিরিশ বিঘা জমি নিয়ে তৈরি হয়েছে গৌরক্ষিণী বাহিনী সভা। আজ থেকে প্রায় একশো আঠার বছর আগে, ১৮৯৯ -য়ে শুরু হয়েছিল এই বৃদ্ধাশ্রমের পথচলা।

কুড়িটি গোরু পিছু একজন কর্মী।ছোলার টুকরোর দানা , খড়, ডালের খোসা দিয়ে তৈরি চুনি। খাওয়া দাওয়া। যত্ন, পরিচর্যায় সুন্দর হয়ে ওঠে শেষের দিনগুলো। নিয়মিত চিকিৎসাও হয় তাদের।

অসুস্থ প্রায় ছশো গবাদিপশুর আস্তানা গৌরক্ষিণী সভায়। তবে ভালো গোরুও আছে। তাদের দুধে তৈরি হয় নানা জিনিস।

ঈশ্বরকে সেবা করছেন কিনা জানেন না। তবে পুরোপুরি ডোনেশনের উপর ভিত্তি করে একশো আঠার বছর ধরে এভাবে নিঃশব্দে জীবে সেবার উদাহরণ বোধহয় খুব বেশি খুঁজে পাওয়া যাবে না ।

First published: 08:06:00 PM Dec 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर