• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • করোনার সঙ্গে ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়া রোধে প্রচারও শুরু করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন

করোনার সঙ্গে ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়া রোধে প্রচারও শুরু করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন

করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু এবং ম্যালেরিয়া রোধে বাসিন্দাদের সচেতন করতে প্রচার চালানো হবে।

করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু এবং ম্যালেরিয়া রোধে বাসিন্দাদের সচেতন করতে প্রচার চালানো হবে।

করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু এবং ম্যালেরিয়া রোধে বাসিন্দাদের সচেতন করতে প্রচার চালানো হবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: ব্যাপকভাবে করোনা আক্রান্ত পাঁচ রাজ্য থেকে আসা বাসিন্দাদের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থাকা বিশেষভাবে প্রয়োজন। সে ব্যাপারে বাসিন্দাদের সচেতন করতে জেলা জুড়ে প্রচারের কর্মসূচি নিল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, জেলায় এমনিতেই ৭৪টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার ছিল। অনেক স্কুলে নতুন করে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা হয়েছে। কিন্তু সচেতনতার অভাবে অনেক এলাকার বাসিন্দারা স্কুলে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খুলতে বাধা দিচ্ছেন। এলাকায় করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে এই আশংকায় তাঁরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। সেজন্যই জনগনকে সচেতন করার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, জেলায় মোট ২১৫টি গ্রাম পঞ্চায়েত রয়েছে। প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে আজ মঙ্গলবার থেকে জনসচেতনতা মূলক প্রচারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু এবং ম্যালেরিয়া রোধে বাসিন্দাদের সচেতন করতে প্রচার চালানো হবে। ইতিমধ্যেই করোনা সংক্রমণের মাঝেই ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ারও সময় এসে গিয়েছে। বাসিন্দাদের ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া থেকে রক্ষা করতেই এই প্রচারের উদ্যোগ। প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে মাইকে প্রচার চালানো হবে।

ব্যাপকভাবে করোনা আক্রান্ত পাঁচ রাজ্য গুজরাত, মহারাষ্ট্র, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, তামিলনাড়ু থেকে যারা এসেছেন তারা যাতে অন্তত সাত দিন কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে কাটান তা নিশ্চিত করতে তাদের সহযোগিতা চাওয়া হচ্ছে। বাইরের রাজ্য থেকে আসা বাসিন্দাদের সুবিধার কথা ভেবে দূরের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের বদলে বাড়ির কাছের স্কুলকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। সেখানে তারা বাড়ির খাবারও খেতে পারবেন তাঁরা। তবে সাত দিন তারা বাড়ির লোকের সংস্পর্শে আসতে পারবেন না।

একইভাবে এলাকায় যাতে জমা জল না থাকে, বাসিন্দারা যাতে মশারি টাঙিয়ে শোয়ার ব্যাপারে সতর্ক থাকেন সে ব্যাপারে প্রচার চালানো হচ্ছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, প্রতিবছরই পতঙ্গ বাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণে জেলাজুড়ে সচেতনতামূলক প্রচার চালানো হয়। এবার সেই প্রচারের অংশ হিসেবে এই কর্মসূচি। এবার ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া পাশাপাশি করোনার ব্যাপারেও সচেতন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by:Ananya Chakraborty
First published: