corona virus btn
corona virus btn
Loading

ডিজিটাল কার্ড থাকলেই রেশন দিতে হবে, নির্দেশ জেলা প্রশাসনের

ডিজিটাল কার্ড থাকলেই রেশন দিতে হবে, নির্দেশ জেলা প্রশাসনের
প্রতীকী চিত্র৷

কোন ধরনের উপভোক্তা রেশনে কী কী সামগ্রী কতটা পরিমাণে বিনামূল্যে পাবেন তার তালিকা তৈরি করে দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান:  ডিজিটাল কার্ড থাকলেই উপভোক্তাকে রেশন দিতে হবে। সেক্ষেত্রে রেশন ডিলারের কোন আপত্তি মানা হবে না। এমনই নির্দেশ জারি করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে,  ডিজিটাল রেশন কার্ড থাকলেও অনেক রেশন ডিলার তালিকায় নাম নেই বলে তাদেরকে ফিরিয়ে দিচ্ছে। আবার অনেক জায়গায় রেশনের খাদ্য সামগ্রী কম দেওয়া হচ্ছে, তার দাম নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে।  কোন ধরনের উপভোক্তা রেশনে কী কী সামগ্রী কতটা পরিমাণে  বিনামূল্যে পাবেন তার তালিকা তৈরি করে দেওয়া হয়েছে। সেই তালিকা যেমন উপভোক্তা পেয়ে যাচ্ছেন, ঠিক তেমনই তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে রেশন ডিলারের কাছেও।  সেই তালিকা ধরে উপভোক্তাকে খাদ্য সামগ্রী দিতে হবে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। তবে পুরনো কার্ডে কোনও রকম রেশন দেওয়া হবে না  বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলাশাসক বিজয় ভারতী বলেন, ডিজিটাল রেশন কার্ড নিয়ে রেশন দোকানে গেলে সেই উপভোক্তাকে রেশন দিতেই হবে। তালিকায় নাম না থাকাটা সেই উপভোক্তার অপরাধ নয়। সেইভাবেই বিষয়টিকে গণ্য করা হবে। তবে পুরনো কার্ডে রেশন দেওয়া হবে না। তিনি জানান, সকাল আটটা থেকে বেলা বারোটা পর্যন্ত এবং দুপুর দুটো থেকে বিকেল চারটে পর্যন্ত রেশন দেবার কথা। কিন্তু এই সময় একশো দিনের কাজ চলছে। ধান কাটার মরশুম চলছে। তাই সকালে আরও এক ঘণ্টা আগে রেশন দোকান খোলার এবং  বিকেলের দিকে একঘণ্টা সময় বাড়ানোর আবেদন এসেছে। স্থানীয়ভাবে প্রয়োজনের ভিত্তিতে সেই সময়সীমা বাড়ানো হতে পারে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, পূর্ব বর্ধমান জেলায় মোট ১৩৫৬টি রেশন দোকান রয়েছে। প্রতিটি রেশন দোকানে দু' জন করে সিভিক ভলেন্টিয়ার মোতায়েন করা হবে। এছাড়াও রেশন দোকানগুলিতে পুলিশি টহল চলবে। কয়েকটি রেশন দোকানের জন্য  একজন করে অফিসার নিয়োগ করা হবে।  রেশন দেওয়ার সময় সামাজিক দূরত্ব অবশ্যই বজায় রাখতে হবে। ডিলার ও উপভোক্তা সকলকে মুখে মাস্ক পরতে হবে। সেখানে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

First published: April 29, 2020, 5:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर