দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

পূর্ব বর্ধমানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬০০ ছাড়াল, গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ৩৭

পূর্ব বর্ধমানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬০০ ছাড়াল, গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ৩৭

বর্ধমান শহরে সাতজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬০০ ছাড়িয়ে এখন সাড়ে ৬০০ গন্ডি ছোঁয়ার মুখে। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে ৩৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন। বুধবার থেকে বর্ধমান শহর জুড়ে লকডাউন চললেও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। নতুন বর্ধমান শহরে সাতজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এই শহরে নতুন করে আরও এক জনের মৃত্যু হওয়ায় আতঙ্ক আরও বেড়েছে। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকরা মনে করছেন, লকডাউন না হলে সংক্রমণ আরও অনেকটাই বেড়ে যেতে পারতো।

রবিবার থেকে নতুন করে লকডাউন শুরু হয়েছে কাটোয়া, কালনা, মেমারি শহর ও শহর সংলগ্ন ১০টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকাতেও। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া এখন বাড়ির বাইরে পা দেওয়া মানে করোনার সংক্রমণকে আমন্ত্রণ জানানো। তাই যথাসম্ভব নিজেদের গৃহবন্দি রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এই মুহূর্তে সবচেয়ে আগে প্রয়োজন।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় এখনও পর্যন্ত মোট ৬১৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে ৩৪৫ জন পুরুষ মহিলা চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখন দুশো তেষট্টি জন পুরুষ মহিলা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এদিন পর্যন্ত এই জেলায় মৃত্যু হয়েছে এগারো জনের। বর্ধমান শহরে নতুন করে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় নতুন করে আক্রান্ত ৩৭ জনের মধ্যে ৭ জন বর্ধমান শহর এলাকার বাসিন্দা। কালনা শহর এলাকায় নতুন করে ৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মেমারি শহরেও নতুন করে একজন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। এছাড়া বর্ধমান শহর লাগোয়া বর্ধমান এক নম্বর ব্লকের নতুন করে ৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ভাতার ব্লকে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ জন। জামালপুর ব্লকে একদিনে নতুন করে ৭ জন আক্রান্ত হওয়ায় উদ্বেগ বেড়েছে।

কালনা এক নম্বর ব্লকে আক্রান্ত হয়েছেন তিন জন। মেমারি এক নম্বর ব্লকেও নতুন করে তিন জন করোনা পজিটিভ হয়েছেন। মেমারি দু'নম্বর ব্লকে চার জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে, আক্রান্তদের মধ্যে যাদের কোনও উপসর্গ নেই বা কম উপসর্গ রয়েছে তাদের বর্ধমানের সেফ হোমে পাঠানো হচ্ছে। বেশি উপসর্গ এবং শ্বাসকষ্ট থাকা রোগীদের বর্ধমানের কোভিড হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। কয়েকজন আক্রান্ত হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

Saradindu Ghosh
Published by: Ananya Chakraborty
First published: July 28, 2020, 8:58 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर