Home /News /south-bengal /
বাসিন্দাদের উপার্জন বাড়াতে ১০০ দিনের কাজ দ্বিগুন করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন

বাসিন্দাদের উপার্জন বাড়াতে ১০০ দিনের কাজ দ্বিগুন করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন

১০০ দিনের কাজ প্রকল্পে বাংলা আবাস যোজনা, গ্রামীন রাস্তা তৈরি, স্কুলের প্রাচীর তৈরির কাজও হবে

  • Share this:

#বর্ধমান: লকডাউনের জেরে কাজ হারিয়েছেন অনেকেই। কাজ না থাকায় বন্ধ উপার্জন। দিনে দিনে বেহাল হয়ে পড়ছে আর্থসামাজিক পরিকাঠামো। তাই গ্রামের বাসিন্দাদের উপার্জন বাড়াতে নানান উন্নয়ন পরিকল্পনা নিল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। সেই সঙ্গে ১০০ দিনের প্রকল্পের কাজ করে গ্রামের বাসিন্দারা যাতে উপার্জন বাড়াতে পারেন সে ব্যাপারে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। জেলা শাসক বিজয় ভারতী বলেন, 'চলতি মাসে ১০০ দিনের কাজ দ্বিগুণ করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।'

পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই জেলায় এখন পর্যন্ত ৫ লক্ষ ২৮ হাজার পরিবারকে ১০০ দিনের কাজ দেওয়া হয়েছে। গত বছর ২ কোটি ১ লক্ষ শ্রম দিবস তৈরি হয়েছিল। এবার ১ কোটি ৬১ লক্ষ শ্রম দিবস তৈরির লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলায়। এখন প্রতিদিন ৫০ হাজার জব কার্ড প্রাপক কাজ করছেন। সেই লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়ে প্রতিদিন যাতে ১ লক্ষ পুরুষ মহিলাকে এই কাজ দেওয়া যায় তার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এপ্রিল-মে মাসে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ২৪ লক্ষ শ্রম দিবস তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছিল। লকডাউনের জেরে এপ্রিল মাসে তেমন কাজ হয়নি। শুধুমাত্র মে মাসেই তাই ২৪ লক্ষ শ্রম দিবস তৈরির নতুন লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, সামনেই বর্ষা মরশুম। তার আগে ১০০ দিনের কাজে বিভিন্ন সেচ নালা সংস্কারের কাজ হবে। সেই সঙ্গে গ্রামীণ এলাকায় পুকুর কাটার কাজ চলবে জল ধরো জল ভরো প্রকল্পের কাজকে ১০০ দিনের কাজের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। এছাড়া ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পে বাংলা আবাস যোজনা, গ্রামীন রাস্তা তৈরি, স্কুলের প্রাচীর তৈরির কাজও হবে। করোনার সংক্রমণ রুখতে সাবধানতার সঙ্গে মুখে ফেস কভার বেঁধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ১০০ দিনের কাজ করানো হবে। সকলে যাতে বারে বারে হাত ধুতে পারেন সেজন্য পর্যাপ্ত জল, হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, পূর্ব বর্ধমান জেলায় ৯ লক্ষের বেশি পরিবারের কাছে জব কার্ড রয়েছে। বিভিন্ন তথ্য জোগাড় করে দেখা যাচ্ছে, ৪ লক্ষ পরিবার ১০০ দিনের কাজ করছেন না। তাঁরা কেন কাজ করছেন না, জব কার্ড কেন করিয়েছিলেন সেসব ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।

Saradindu Ghosh

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: 100 Days Work, Local Administration, Purba bardhamna

পরবর্তী খবর