অভিষেকের সভায় গরহাজির, তৃণমূলের চিন্তা বাড়ালেন আরও এক সাংসদ

অভিষেকের সভায় গরহাজির, তৃণমূলের চিন্তা বাড়ালেন আরও এক সাংসদ
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় এলেন না সাংসদ প্রতিমা মণ্ডল৷

  • Share this:

    #জয়নগর: খোদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা, আর সেই সভাতেই গরহাজির থেকে তৃণমূলের উদ্বেগ আরও বাড়ালেন জয়নগরের সাংসদ প্রতিমা মণ্ডল৷ সভায় অনুপস্থিত থাকার জন্য অবশ্য দক্ষিণ চব্বিশ পরগণায় তৃণমূলের যুব সভাপতি শওকত মোল্লার দিকেই আঙুল তুলেছেন প্রতিমা৷

    রবিবার কুলতলিতে সভা ছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ জয়নগরের সাংসদ এলাকার মধ্যেই পড়ে কুলতলি৷ কিন্তু সেই সভাতেই দেখা যায়নি প্রতিমা মণ্ডলকে৷ সাংসদের অনুপস্থিতি নিয়ে শুরু হয় জোর জল্পনা৷ অভিষেকের সভায় না আসা প্রসঙ্গে রাখঢাক না করেই প্রতিমা বলে দেন, 'সাংসদ হিসেবে আমাকে ন্যূনতম সম্মানটুকু দেওয়া হয়নি৷ সভার আমন্ত্রণপত্রে আমার নামও ছাপা হয়নি৷' প্রতিমার অভিযোগের তির ছিল জেলার যুব তৃণমূল সভাপতি শওকত মোল্লার দিকে৷ তৃণমূল সাংসদ বলেন, 'শওকত মোল্লা ওনার এলাকার কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচিতেই আমাকে আমন্ত্রণ জানান না৷'


    পরে দলের সঙ্গে দূরত্বের ইঙ্গিত দিয়ে প্রতিমা মণ্ডল আরও বলেন, 'আমি জোড়াফুলের ভোটে মনোনীত হয়েছি ঠিকই৷ কিন্তু মানুষের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি৷ মানুষের সম্মানটা আমার কাছে সবার আগে৷ সাড়ে তিন লক্ষ ভোটে আমি জিতেছিলাম৷ ২০২৪-এ দল যদি আমাকে ফের টিকিট দেয় তাহলে আবার তৃণমূলের হয়ে লড়ব৷'

    প্রতিমা মণ্ডলের এই অনুপস্থিতিতে স্বাভাবিক ভাবেই দল ভাল ভাবে নেয়নি৷ খোদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় না এসে তিনি দলকেই বড়সড় অস্বস্তিতে ফেলেছেন বলেই তৃণমূল নেতৃত্ব মনে করছে৷ তৃণমূলের বিদ্রোহী সাংসদ-বিধায়কদের মতো প্রতিমাও গেরুয়া শিবিরের দিকে ঝুঁকে পড়েছেন কি না, সেই প্রশ্নও উঠছে৷

    তবে যাঁর বিরুদ্ধে প্রতিমা মণ্ডলের অভিযোগ, সেই শওকত মোল্লা অবশ্য সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন৷ তাঁর দাবি, 'সবাইকেই আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম৷ অনেক সাংসদ- বিধায়করা এসেছিলেন৷ কারও ব্যক্তিগত অসুবিধা থাকতেই পারে৷ আমাদের দলে কোনও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নেই৷'শেষ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের নিরিখেও দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা

    এখনও তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি৷ তবে দীর্ঘ দিন ধরেই সেখানে যুব এবং মূল তৃণমূলের মধ্যে সংঘাত চলছে৷ সেই ফাটলকে কাজে লাগিয়েই দক্ষিণ চব্বিশ পরগণাতেও পদ্ম ফোটানোর কৌশল নিতেই পারে বিজেপি৷ তার উপর এই জেলায় একদা তৃণমূলের সাফল্যের মূল কারিগর শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপি-র হয়ে সক্রিয় ভাবে মাঠে নেমেছেন৷ ফলে খাসতালুকেও চিন্তা বেড়েছে তৃণমূলের৷ দলের সাংসদ প্রতিমা মণ্ডল সেই উদ্বেগ আরও বাড়ালেন৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর