• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বয়স্ক গ্রাহকদের বাড়িতেই পেনশনের টাকা পৌঁছে দিলেন ডাককর্মীরা

বয়স্ক গ্রাহকদের বাড়িতেই পেনশনের টাকা পৌঁছে দিলেন ডাককর্মীরা

 বন্ধ হয়ে গিয়েছে সমস্ত যানবাহন। এই অবস্থায় অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মীদের অনেকেই  পেনশন তুলতে যাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছেন।

বন্ধ হয়ে গিয়েছে সমস্ত যানবাহন। এই অবস্থায় অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মীদের অনেকেই পেনশন তুলতে যাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছেন।

বন্ধ হয়ে গিয়েছে সমস্ত যানবাহন। এই অবস্থায় অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মীদের অনেকেই পেনশন তুলতে যাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছেন।

  • Share this:

Supratim Das

#বীরভূম: অভিনব উদ্যোগ বীরভূমের ডাককর্মীদের। লক ডাউন চলছে। যানবাহন সবই বন্ধ। এই অবস্থায় পঁচাত্তরর্ধ্ব ব্যক্তিরা পেনশন তুলতে যেতে পারছেন না। সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এলেন বীরভুমের ডাককর্মীরা। যেসব ব্যক্তি প্রতিমাসে দেওয়া পেনশনের পুরো অর্থই তুলে নেন তাঁদের বাড়িতে গিয়েই টাকা দিয়ে এলেন ডাককর্মীরা।

মারণ রোগ করোনা ভাইরাসের প্রকোপ এড়াতে সামাজিক দুরত্ব সৃষ্টির জন্য লক ডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। তার জেরে বন্ধ হয়ে গিয়েছে সমস্ত যানবাহন। এই অবস্থায় অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মীদের অনেকেই  পেনশন তুলতে যাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছেন। পঁচাত্তরর্ধ্ব বয়সের  যেসব ব্যক্তিরা ওল্ড পেনশন স্কিমে রয়েছেন এবং যানবাহন না থাকায় পেনশন তুলতে পারছেন না। তাঁদের সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এলেন ডাককর্মীরা। ওই ব্যক্তিদের বাড়িতে পেনশনের টাকা পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। সেই মতোই পাঁচজন ডাককর্মীকে নিয়ে একটি টিমও গড়ে তোলা হয়েছে বীরভূম জেলা ডাক দফতরের পক্ষ থেকে।

আর তারপরই ওই ব্যক্তিদের বাড়িতে গিয়ে টাকা দিয়ে আসছেন ডাককর্মীরা। ৩ এপ্রিল রামপুরহাটের ১৭ জন, সিউড়ির ৬ জন, শান্তিনিকেতনের ১ ও সাঁইথিয়ার ১জনের বাড়িতে গিয়ে সরকারি নিয়ম মেনে সই করানোর পর তাঁদের হাতে পেনশনের টাকা দিয়ে আসেন ডাককর্মীরা। তবে শুধু পঁচাত্তর বছরের কম বয়সী পেনশন প্রাপক ব্যক্তিদের কেউ যদি দফতরের কাছে আবেদন জানান, বাড়িতে টাকা দিয়ে আসার সেক্ষেত্রেও একই ভাবে পেনশনের টাকা দিয়ে আসা হবে বলেই জানিয়েছেন সিউড়ির বড়ো ডাকঘরের সহকারী পোষ্ট মাষ্টার অনন্ত পাল।

Published by:Simli Raha
First published: