• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • মানবিকতার জয়! চার দিন ঘরে তালাবন্দি বৃদ্ধা, অসাধ্যসাধন করল বাংলার পুলিশ

মানবিকতার জয়! চার দিন ঘরে তালাবন্দি বৃদ্ধা, অসাধ্যসাধন করল বাংলার পুলিশ

তখন চলছে তালাভাঙার কাজ। উত্তরবঙ্গ

তখন চলছে তালাভাঙার কাজ। উত্তরবঙ্গ

একাই থাকতেন ওই বৃদ্ধা। বাজার করে চারদিন আগে বাড়িতে ঢুকে অসুস্থ হয়ে পড়েন এই বৃদ্ধা। তার পর থেকেই আর সাড়া মেলেনি তাঁর।

  • Share this:

#সিউড়ি: মরণাপন্ন অবস্থায় নিজের ঘরেই বন্দি এক বৃদ্ধাকে উদ্ধার করল পুলিশ। বৃদ্ধাকে উদ্ধার করতে রীতিমতো দরজা ও ভেতর থেকে বন্ধ করা তালা ভাঙতে হয় পুলিশকে। এরপর ওই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তড়িঘড়ি। ঘটনা বীরভূমের দুবরাজপুরের।

বীরভূমের দুবরাজপুরে চচএদিকে আশেপাশের বাড়ি থেকে কয়েকদিন ওই বৃদ্ধাকে দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হয়। তাঁরা অন্য বাড়ির ছাদ থেকে দেখতে পান ওই অসুস্থ বৃদ্ধাকে। তাঁরা ঘটনার কথা জানান দুবরাজপুর থানায়,  ঘটনার কথা জানতে পেরেই তড়িঘড়ি তালা ভেঙে ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করা হয়।

বৃদ্ধার উঠে আসারও ক্ষমতা ছিলনা,  প্রায় ৪ থেকে জল খাননি তিনি। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি ব্যাবস্থা করে দুবরাজপুর থানা ও দুবরাজপুর পুরসভা।  দুবরাজপুর শহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে অভয়া মন্দিরের কাছে ওই বৃদ্ধা গৃহবন্দি অবস্থায় ছিলেন।

ওই বৃদ্ধার নাম গীতা খাগ। তার বয়স ৮০ বছরের বেশি। আর এই ঘটনার কথা জানতে পেরে দুবরাজপুর থানার  ইন্সপেক্টর মাধব চন্দ্র মন্ডল এবং দুবরাজপুর পৌরসভার চেয়ারপারসন পীযূষ পান্ডে  উপস্থিত থেকে তালা ভেঙ্গে ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করেন। এরপর পৌরসভার পক্ষ থেকে ওই বৃদ্ধাকে দুবরাজপুর গ্রামীণ হাসপাতালে পাঠানো হয় চিকিৎসার জন্য।দুবরাজপুর পৌরসভার প্রশাসক পীযূষ পান্ডে বলেন, ওই বৃদ্ধার কোন আত্মীয়-স্বজন নেই। এরপর অসুস্থ অবস্থায় বাড়ির মধ্যে গৃহবন্দি হয়ে পড়েন। আর তারপরেই প্রশাসনিক ভাবে এমন মহৎ উদ্যোগ নেওয়া হয়।

Published by:Arka Deb
First published: