Cyclone Yaas Update: খোঁজ নিতে আসেনি ছেলেরা, জনশূন্য গ্রামে একা ইয়াসের অপেক্ষায় বৃদ্ধা!

photo source collected

ধেয়ে আসছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়। আতঙ্কে গ্রাম ছেড়ে নিরাপদ স্থানে চলে গিয়েছেন প্রায় প্রত্যেকেই। কিন্তু ৭৬ বছরের অশক্ত শরীরে, ঝুপড়ি ঘর ছেড়ে একা কোথাও যেতে পারেননি মেনকা বসন্ত।

  • Share this:

#ফ্রেজারগঞ্জ: ধেয়ে আসছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়। আতঙ্কে গ্রাম ছেড়ে নিরাপদ স্থানে চলে গিয়েছেন প্রায় প্রত্যেকেই। কিন্তু ৭৬ বছরের অশক্ত শরীরে , ঝুপড়ি ঘর ছেড়ে একা কোথাও যেতে পারেননি মেনকা বসন্ত। তাই ঝড় ধেয়ে আসছে জেনেও ভাঙাচোরা ঝুপড়িতে অসহায় ভাবে ঝড়ের অপেক্ষা করছিলেন তিনি। মেনকা দেবী দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার ফ্রেজারগঞ্জের বিজয়বাটির কালি স্থানের বাসিন্দা। সমুদ্র উপকূলবর্তী ফ্রেজারগঞ্জে ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে যথেষ্ট ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। তাই প্রশাসনের পরামর্শে গ্রাম ছেড়ে নিরাপদ স্থানে সরে যেতে শুরু করেন এলাকার বাসিন্দারা। কিন্তু ৭০ বছর বয়সী মেনকা দেবীর পক্ষে তা সম্ভব হয়নি। কারণ একে বয়স হয়েছে, তার উপর গত কয়েকদিন ধরেই জ্বর, সর্দি- কাশির মতো সমস্যায় ভুগছেন তিনি। ফলে একা হেঁটে যে ত্রাণ কেন্দ্রে যাবেন, সেই শক্তিটুকু নেই তাঁর।

তাই এ দিন দুপুরেও নিজের ছোট্ট ঝুপড়ি ঘরেই অসহায় ভাবে শুয়েছিলেন তিনি। ঘূর্ণিঝড় ধেয়ে আসছে জেনেও যেন তার মুখোমুখি হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন মনে মনে। মেনকা দেবীর ঝুপড়ি একেবারে নদীর বাঁধের উপরে। ঝড়ের আগে যে যদি রীতিমতো ফুঁসছে। ক্রমশ বাড়ছে হাওয়ার গতি। ঘূর্ণিঝড়ের সময় প্লাস্টিকের ঝুপড়ির কী দশা হবে, তা সহজেই অনুমেয়। তা সত্ত্বেও সেই ঝুপড়ির মধ্যেই একা শুয়েছিলেন মেনকা দেবী। এমন নয় যে মেনকা দেবীর কেউ নেই। তাঁর তিন ছেলে, পুত্রবধূ, নাতি- নাতনিরা রয়েছে। কিন্তু তিন ছেলের কেউই মায়ের দায়িত্ব নেয়নি। অসহায় বৃদ্ধা বলেন,'আমার শরীর খারাপ। জ্বর, কাশি হয়েছে। একাই থাকি, রান্নাও নিজেই করি।' কিন্তু ঝড় আসছে তো, ভয় লাগে না?বৃদ্ধার জবাব,'না, দেখি কী হয়। আমি কোথাও যেতে পারব না।' এক ছেলে বাইরে থাকলেও বাকি দুই ছেলে। কাছাকাছিই থাকেন। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় আসছে জেনেও মায়ের খবর নিতে আসেননি কেউ। অসহায় বৃদ্ধার এই অবস্থার কথা তুলে ধরে News18 Bangla| এর পরই বিকেলে পুলিশ এসে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। তখনও মায়ের খোঁজ নিতে আসেননি মেনকা দেবীর ছেলেরা।

Shanku Santra

Published by:Piya Banerjee
First published: