Home /News /south-bengal /

Coronavirus| Bangla News|| সাবধান! মাস্ক না পরলেই জনে জনে গ্রেফতার! কোথায় দেখা গেল এমন দৃশ্য?

Coronavirus| Bangla News|| সাবধান! মাস্ক না পরলেই জনে জনে গ্রেফতার! কোথায় দেখা গেল এমন দৃশ্য?

বর্ধমানে পুলিশি অভিযান।

বর্ধমানে পুলিশি অভিযান।

Police arrested people those who are not wearing mask: এ বার মাস্ক না পরলে সরাসরি গ্রেফতার করা হচ্ছে বাসিন্দাদের। হাতে নতুন মাস্ক ধরিয়ে দিয়ে তাঁদের পুলিশের গাড়িতে উঠতে বাধ্য করা হচ্ছে। সেখান থেকে আটক বাসিন্দাদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে থানায়।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

#বর্ধমান: আর অনুরোধ নয়, এ বার মাস্ক না পরলে সরাসরি গ্রেফতার করা হচ্ছে বাসিন্দাদের। হাতে নতুন মাস্ক ধরিয়ে দিয়ে তাঁদের পুলিশের গাড়িতে উঠতে বাধ্য করা হচ্ছে। সেখান থেকে আটক বাসিন্দাদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে থানায়। অনেককেই মাস্ক না পরার অভিযোগে গ্রেফতারও করা হচ্ছে। সোমবার এমন দৃশ্য দেখা গেল বর্ধমান শহরে।

করোনার সংক্রমণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে রাজ্য সরকার। সেই সব বিধি নিষেধ কার্যকর করতে তৎপরতা দেখা গেল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের মধ্যে। এ দিন সকাল থেকেই বাসিন্দাদের মাস্ক পরতে বাধ্য করতে রাস্তায় নামে বর্ধমান থানার পুলিশ। মুখে মাস্ক না লাগানো বাসিন্দাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়। মোটর সাইকেল, চারচাকা গাড়ি দাঁড় করিয়ে সওয়ারিরা মাস্ক পরেছেন কিনা তা খুঁটিয়ে দেখে পুলিশ। মাস্ক না পরা গাড়ির আরোহীদের টেনে হিঁচড়ের নামাতেও দেখা গেছে পুলিশ কর্মী অফিসারদের। চলন্ত বাস দাঁড় করিয়ে সেই বাসে উঠে তল্লাশি চালায় পুলিশ। মাস্ক না পরার জন্য অন্তত ৬৫জনকে আটক করে বর্ধমান থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এদের মধ্যে বেশ কয়েক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে বর্ধমান থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: আজ থেকে বন্ধ প্রাইমারি-সেকেন্ডারি স্কুল, লক্ষ লক্ষ পড়ুয়ার স্বার্থে বড় নির্দেশ শিক্ষা দফতরের

বর্ধমানে পুলিশি অভিযান। বর্ধমানে পুলিশি অভিযান।

বর্ধমান শহরের পার্কাস রোড মোড়ে জি টি রোডের ওপর অভিযান চালায় পুলিশ। পাশাপাশি শহরের প্রাণকেন্দ্র কার্জন গেট, বীরহাটাতেও পুলিশের তৎপরতা লক্ষ্য করা গিয়েছে। শহরে ঢোকার সব প্রবেশপথেই পথচারী থেকে শুরু করে সকলে মাস্ক পরছেন কিনা তা দেখতে নজরদারি বাড়িয়েছে পুলিশ। পুলিশের এই তৎপরতায় কাজ হয়েছে অনেকটাই। গ্রেফতার হওয়ার ভয়ে এখন অনেকেই মুখে মাস্ক লাগিয়ে যাতায়াত করছেন। জেলা পুলিশের এক পদস্থ আধিকারিক বলেন, এক নাগাড়ে দীর্ঘদিন ধরে বাসিন্দাদের মুখে মাস্ক লাগিয়ে, যাবতীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য, সচেতন করার কাজ চালানো হচ্ছে। দিনরাত এক করে প্রচার চালাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন পুরসভা। এরপরেও বাসিন্দাদের একাংশের মধ্যে মুখে মাস্ক লাগানোর ব্যাপারে যথেষ্ট অনীহা লক্ষ্য করা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত শত শত চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মী, কীভাবে হবে চিকিৎসা? রাজ্যের বৈঠকে যা উঠে এল...

উল্লেখ্য, লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তৃতীয় ঢেউ যাতে আছড়ে পড়তে না পারে তা নিশ্চিত করতে কড়া পদক্ষেপ নিতে হচ্ছে। সে কারণেই মাস্ক না পরা বাসিন্দাদের আটক করে, গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। দ্বিতীয় দিন ঘর থেকে বাইরে বেরিয়ে তারা যাতে আর মাস্কে মুখ ঢাকতে না ভোলেন তা নিশ্চিত করতে এই পদক্ষেপ। বাসিন্দাদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে ধারাবাহিকভাবে এই অভিযান চালানো হবে।

Saradindu Ghosh

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Coronavirus, East Bardhaman

পরবর্তী খবর