• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বিজেপির পাখির চোখ পশ্চিমবঙ্গ! ১৮ মার্চ ফের বাংলায় সভা করতে পারেন মোদি

বিজেপির পাখির চোখ পশ্চিমবঙ্গ! ১৮ মার্চ ফের বাংলায় সভা করতে পারেন মোদি

নরেন্দ্র মোদি৷ Photo-ANI

নরেন্দ্র মোদি৷ Photo-ANI

রবিবার অর্থাৎ ৭ মার্চ ব্রিগেডে উপস্থিত ছিলেন মোদি। জানা যাচ্ছে ফের ১৮ মার্চ বাংলায় আসতে চলেছেন তিনি। এদিন পুরুলিয়ায় একটি সভা করতে পারেন বিজেপি নেতৃত্ব।

  • Share this:

    #পুরুলিয়া: বিজেপির পাখির চোখ এখন পশ্চিমবঙ্গ। তাই একের পর এক সভা করতে বাংলায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রবিবার অর্থাৎ ৭ মার্চ ব্রিগেডে উপস্থিত ছিলেন মোদি। জানা যাচ্ছে ফের ১৮ মার্চ বাংলায় আসতে চলেছেন তিনি। এদিন পুরুলিয়ায় একটি সভা করতে পারেন বিজেপি নেতৃত্ব।

    রবিবার তাঁর ব্রিগেডের সবচেয়ে বড় চমক ছিল অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর উপস্থিতি। ব্রিগেডে পৌঁছোনোর আগেই তিনি ট্যুইটে লিখেছিলেন, 'বিপুল জনসমাবেশের দিকে যাচ্ছি'। আর দুপুর আড়াই নাগাদ ব্রিগেডের মঞ্চে হাজির হয়েই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলে দিলেন, 'রাজনৈতিক জীবনে বহু সমাবেশ করেছি। কিন্তু এমন সমাবেশ দেখিনি।' বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলার মানুষের মন জয় করতে একটুও সুযোগ ছাড়ছেন না মোদি।

    ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে একই সঙ্গে বাম ও তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন এদিন তিনি। মোদি বলেন, ৩৪ বছরে বামেরা কিছু করেনি। তাই বাংলার মানুষ মমতা দিদিকে সুযোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি বাংলার ভরসা ভেঙেছেন দিদি। বিজেপিই বাংলাকে সোনার বাংলা করে তুলবে। আমাদের বাংলার ছেলে-মেয়েরা এবার আসল পরিবর্তনের জন্য এগিয়ে আসছে। আমি এই ব্রিগেড থেকে বলে যাচ্ছি, আমরা আসল পরিবর্তন আনব।

    তাঁর চোখে আসল পরিবর্তন কী,সেই ব্যাখ্যাও দেন তিনি। মোদি বলছেন, "আমি এখানে এসেছি আপনাদের বাংলার আসল পরিবর্তনের বিশ্বাস দিতে৷ কী সেই বিশ্বাস? বাংলার বিকাশের বিশ্বাস, স্থিতি বদলের বিশ্বাস, নতুন বিনিয়োগ ও উদ্যেগের বিশ্বাস৷ বাংলার পুননির্মাণ হবে এখানকার সংস্কৃতি ও পরম্পরার রক্ষা করেই। এখানকার যুবক-যুবতী, কৃষক, মা-বোনেদের বিকাশ হবে৷ তার জন্য আমরা ২৪ ঘণ্টা দিন-রাত পরিশ্রম করব৷ আপনাদের স্বপ্ন নিয়ে আমরা বাঁচব।"

    তবে এখনও একটি প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে রাজনৈতিক মহলে। বিজেপির পক্ষ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মুখ হিসেবে কাকে দেখা যাবে। রবিবারের ব্রিগেডের পরে অনেকেই মনে করছেন মিঠুন চক্রবর্তীকেই মুখ্যমন্ত্রী মুখ করে দিতে পারে বিজেপি। কারণ মিঠুনকে 'বাংলার ঘরের ছেলে' হিসেবে পরিচয় করান তিনি। অন্যদিকে তৃণমূল 'বাংলা ঘরের মেয়েকেই চায়' এই স্লোগান নিয়েই প্রচার করছে।

    বিজেপি প্রথম দুই দফার কেন্দ্রে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে ইতিমধ্যেই। পুরুলিয়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রার্থী হয়ে দাঁড়াচ্ছেন সুদীপ মুখোপাধ্যায়। অন্যদিকে ২৯১টি আসনে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে। তৃণমূল। পুরুলিয়া বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী দাঁড়াচ্ছেন সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: