Home /News /south-bengal /
Partha Chatterjee: রমরমার দিন শেষ, তৃণমূল নেতার কলেজ থেকে উধাও পার্থর নামের ফলক- ছবি

Partha Chatterjee: রমরমার দিন শেষ, তৃণমূল নেতার কলেজ থেকে উধাও পার্থর নামের ফলক- ছবি

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারের পর থেকেই টাকা ফেরতের জন্য ভগবানপুরের প্রয়াত তৃণমূল নেতা নান্টু প্রধানের বাড়িতে ভিড় করছিলেন প্রতারিত চাকরি প্রার্থীরা৷

  • Share this:

#কাঁথি: ভগবানপুরের বিতর্কিত প্রয়াত তৃণমূল নেতা নান্টু প্রধানের কলেজ আর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ছবি ফলক সরিয়ে দেওয়ার কাজ শুরু হল! পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারের পর থেকেই টাকা ফেরতের জন্য ভগবানপুরের প্রয়াত তৃণমূল নেতা নান্টু প্রধানের বাড়িতে ভিড় করছিলেন প্রতারিত চাকরি প্রার্থীরা৷ চাপে পড়ে প্রতারিতদের টাকা ফেরত দিতে যখন বাধ্য হচ্ছেন নান্টুর বাবা৷ তার মধ্যেই পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের এক নাম লেখা এক একটি ফলক সরানো হচ্ছে নান্টুর প্রতিষ্ঠানগুলির দেওয়াল থেকে।

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের অতি ঘনিষ্ঠ হিসেবেই এলাকায় পরিচিত ছিলেন প্রয়াত তৃণমূল নেতা নান্টু প্রধান৷ এক সময় সরকারি চাকরি দেওয়ার নাম করেই দেদার টাকা তুলেছিলেন বলে অভিযোগ। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ পরিচয় দিয়ে স্কুলে চাকরি দেওয়ার নাম করে এক সময় প্রচুর টাকা তুলেছিলেন নান্টু।

আরও পড়ুন: 'দল, মন্ত্রিসভাকে অসম্মান করবেন না!' পার্থ কাণ্ডের মধ্যেই মন্ত্রীদের বললেন মমতা

ভগবানপুর এলাকায় নান্টু প্রধানের বেসরকারি বিএড কলেজ থেকে শুরু করে এনজিও, অনেক কিছুই ছিল৷ পার্থ অনুগামী নান্টু সেই প্রতিষ্ঠানগুলির প্রায় সবকটিতেই প্রাক্তন মন্ত্রীর ছবি, নামের ফলক লাগিয়ে রেখেছিলেন৷

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেপ্তারের খবর সামনে আসতেই দলে দলে প্রতারিত চাকরি প্রার্থীরাভগবানপুরের মহম্মদপুরে নান্টুর বাড়িতে আসতে শুরু করেন।

আসছেন চাকরির জন্য দেওয়া টাকা ফেরত নিতেই। নান্টুর অসুস্থ বাবা পার্থ ঘনিষ্ঠতার কথা স্বীকার করে বলেন, ধাপে ধাপে প্রত্যেকের টাকাই ফিরিয়ে দিচ্ছেন তিনি।

আরও পড়ুন: বিরাট খবর, রাজ্যে আরও ৭ নতুন জেলা! ঘোষণা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

এদিকে, স্থানীয় বাসিন্দা থেকে প্রতিবেশী সকলেই জানাচ্ছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের স্নেহধন্যই ছিলেন দাপুটে নান্টু। সেই পরিচয়কে সামনে রেখেই চাকরি দেওয়ার নাম করে দেদার টাকা তুলতেন তিনি! এখন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতার কাণ্ডের পর সেসব নিয়েই জোর চর্চা শুরু হয়েছে এলাকায়।

জানা গিয়েছে, ঘনিষ্ঠতার কারণে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের একাধিক ছবি, তাঁর নামাঙ্কিত ফলক নান্টুর প্রায় সব প্রতিষ্ঠানেই রয়েছে। সেইসব ফলকই এখন পরপর খুলে নেওয়া শুরু হয়েছে নান্টুর প্রতিষ্ঠানগুলি থেকে। কিন্তু কেন এবং কারা খুলে নিচ্ছে এইসব ফলক? এই প্রশ্নে কিছু জানেন না বলে দায় এড়াচ্ছেন নান্টুর বাবা এবং তাঁর স্ত্রী।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Partha Chatterjee, SSC Scam

পরবর্তী খবর