ড্রাগের নেশায় প্রতিবাদ করায় বেদম মার যুবককে, চাঞ্চল্য কালনায়

ড্রাগের নেশায় প্রতিবাদ করায় বেদম মার যুবককে, চাঞ্চল্য কালনায়
স্থানীয় বাসিন্দারাই রাকেশকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কালনা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন ওই যুবক। খবর পেয়ে কালনা থানার পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে বিস্তারিত খোঁজখবর নেয়।

স্থানীয় বাসিন্দারাই রাকেশকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কালনা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন ওই যুবক। খবর পেয়ে কালনা থানার পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে বিস্তারিত খোঁজখবর নেয়।

  • Share this:

#বর্ধমান: জনবহুল এলাকায় প্রকাশ্যে ড্রাগের নেশার প্রতিবাদ করেছিলেন এক যুবক। সেজন্য তাঁকে বেদম মারধর করার অভিযোগ উঠল কয়েকজন দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনায় এই ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর জখম ওই যুবককে কালনা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অবিলম্বে মারধরের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা। এরপর আর যাতে ওই এলাকায় ড্রাগে আসক্তরা ডেরা না বাঁধতে পারে তা নিশ্চিত করার দাবি তুলেছেন তাঁরা।

বৃহস্পতিবার রাতে পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনার বারুইপাড়ার ভানুর বাগান এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর জখম ওই যুবকের নাম রাকেশ ঘোষ। স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিদিনই রাতের অন্ধকারে এমনকি দিনে দুপুরেও এই এলাকায় হেরোইনের আসর বসে। সেই সঙ্গে নানা অসামাজিক কাজকর্ম চলে। এলাকার বাসিন্দারা কয়েকবার তার প্রতিবাদ করলেও তাতে কর্ণপাত করেনি মাদকাসক্তরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর নিয়মমাফিক কয়েকজন জমায়েত হয়ে সেখানে হেরোইনের নেশা করছিল। এলাকার যুবক রাকেশ ঘোষ তাদের কাছে গিয়ে তার প্রতিবাদ করে। মাদক তাদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয় এরপরই ওই যুবকরা রাকেশকে রাস্তায় ফেলে ব্যাপক মারধর শুরু করে বলে অভিযোগ। রাকেশকে মারধর করা হচ্ছে দেখে এলাকার অন্যান্য ছুটে এলে তাঁকে ফেলে চম্পট দেয় অভিযুক্তরা।


স্থানীয় বাসিন্দারাই রাকেশকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কালনা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন ওই যুবক। খবর পেয়ে কালনা থানার পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে বিস্তারিত খোঁজখবর নেয়। রাকেশ পুলিশকে অভিযুক্তদের নাম সহ ঘটনার কথা সবিস্তারে জানিয়েছেন। এলাকার বাসিন্দাদের দাবি, আগেও পুলিশকে জানানো হয়েছিল। কিন্তু সেভাবে তৎপরতা দেখা যায়নি। তাই এবার যাতে আর ওই এলাকায় মাদকাসক্তরা একই কাজ চালিয়ে যেতে না পারে তা নিশ্চিত করা দরকার পুলিশের। জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,আহত ওই যুবকের সঙ্গে কথা বলার পর অভিযুক্তদের ধরার ব্যাপারে চেষ্টা চালাচ্ছে কালনা থানার পুলিশ।

Published by:Pooja Basu
First published: