রাসবিহারী ঘোষের পুজোই এখন গ্রামের সর্বজনীন পুজো, প্রয়াত আইনজীবীর পুজোকে আপন করে নিয়েছেন গ্রামের মানুষ

রাসবিহারী ঘোষের পুজোই এখন গ্রামের সর্বজনীন পুজো, প্রয়াত আইনজীবীর পুজোকে আপন করে নিয়েছেন গ্রামের মানুষ

একসময় ঢাকের বোলে উ‍ৎসব দেখত এই বাড়িটা। এই বাড়িটা ছিল বিশিষ্ট আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ রাসবিহারী ঘোষের।

  • Share this:

#বর্ধমান: বর্ধমানের তোড়কোণায় বিশিষ্ট আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ রাসবিহারী ঘোষের জন্মভিটে। এখানেই দুর্গাপুজো শুরু করেছিলেন তিনি। এখন রাসবিহারী ঘোষের পুজোই গ্রামের সর্বজনীন পুজো। প্রয়াত আইনজীবীর পুজোকে আপন করে নিয়েছেন গ্রামের মানুষ।

ফাঁকা জমির উপর বিশাল প্রাসাদ। দেওয়ালের ফাঁক দিয়ে আকাশ ছুঁতে চায় বট অশ্বত্থ। বিরাট বাড়িটার শুধু কাঠামোটা আছে। ভিতরে সময়ের ছিন্নভিন্ন ক্ষত। একসময় ঢাকের বোলে উ‍ৎসব দেখত এই বাড়িটা। এই বাড়িটা ছিল বিশিষ্ট আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ রাসবিহারী ঘোষের। বর্ধমানের তোড়কোণা ছিল জন্মভিটে। রাসবিহারী ঘোষের হাতে এখানে পুজো শুরু হয়। গরিবদের মধ্যে নতুন জামা বিলিয়ে দিতেন। গ্রামে ছড়িয়ে ছিটিয়ে তাঁর জমি, পুকুর। গ্রামবাসীদের আলিঙ্গনে এখন রাসবিহারী ঘোষের পুজোই সর্বজনীন। অন্য বারোয়ারি পুজো হয় না।

- ১৮৪৫ সালে খণ্ডঘোষের তোড়কোণায় জন্মগ্রহণ করেন রাসবিহারী ঘোষ

- ১৮৮৪ সালে ডক্টরস অফ ল ডিগ্রিতে সম্মানিত হন

- দু’বার জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্ব পান

Loading...

- ১৯১৫ সালে নাইট উপাধি পান রাসবিহারী ঘোষ

- কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈজ্ঞানিক গবেষণার জন্য ১০ লক্ষ টাকা দান করেন তিনি

- যাদবপুরে ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ এডুকেশন তৈরির জন্যও দান করেন তিনি

- পরে তা যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় নামে পরিচিত হয়

- নিজের গ্রামে স্কুল,হাসপাতাল তৈরি করেন রাসবিহারী ঘোষ

- অকাতরে দানের জন্য রাসবিহারী ঘোষকে বলা হত ‘দানবীর’

তোড়কোণা চায় রাসবিহারী ঘোষের বাড়িটা আবার পুজোয় সেজে উঠুক।

আইনজ্ঞ রাসবিহারী ঘোষের নামেই কলকাতার রাসবিহারী এভিনিউ। আশপাশেই নামকরা কয়েকটি পুজো হলেও রাসবিহারী এভিনিউ মনে মনে ভাবে রাসবিহারী ঘোষের কথা।

First published: 07:42:50 PM Sep 24, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर