corona virus btn
corona virus btn
Loading

কলকাতায় যাওয়ার সরকারি বাস হাতে গোনা, সমস্যায় বর্ধমানের বাসিন্দারা

কলকাতায় যাওয়ার সরকারি বাস হাতে গোনা, সমস্যায় বর্ধমানের বাসিন্দারা

অনেককেই প্রতিদিন কলকাতায় যাতায়াত করতেই হচ্ছে। কিন্তু সরকারি বাস না থাকায় খুবই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সেইসব যাত্রীদের।

  • Share this:

#বর্ধমান: চাহিদার তুলনায় সরকারি বাস রয়েছে অনেক কম। তার ফলে কলকাতা যাতায়াত করতে খুবই সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে বর্ধমানের বাসিন্দাদের। টিকিট কেটে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পর মিলছে বাস। তাও সংখ্যায় হাতেগোনা। যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়ানো দাবি তুলছেন অনেকেই। তাঁরা বলছেন,লোকাল ট্রেন চলাচল এখনো শুরু হয়নি। অথচ কাজের প্রয়োজনে অনেককেই  প্রতিদিন কলকাতায় যাতায়াত করতেই হচ্ছে। কিন্তু  সরকারি বাস না থাকায় খুবই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সেইসব যাত্রীদের।

বর্ধমানের অনেক যাত্রী কলকাতায় যাতায়াতের জন্য সরকারি বাসের উপর নির্ভরশীল। সারা বছরই তারা সরকারি বাসেই কলকাতায় যাতায়াত করেন। আনলক ওয়ানের হাত ধরে অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান খুলে গিয়েছে। সরকারি অফিসেও অনেককে হাজিরা দিতে হচ্ছে। এছাড়াও জরুরি প্রয়োজনে কলকাতা যেতে হচ্ছে অনেককেই। কিন্তু তারা সমস্যায় পড়েছেন প্রয়োজনীয় সংখ্যক সরকারি বাস না থাকায়।

এমনিতে বর্ধমান করুনাময়ী বা বর্ধমান ধর্মতলা রুটে ভোর থেকে রাত পর্যন্ত প্রচুর সরকারি বাস চলে। আধঘন্টা অন্তর বাস পাওয়া যায় বর্ধমানের নবাবহাট বা পূর্বাশা বাস স্ট্যান্ড থেকে। লকডাউনের পর সরকারি বাস চলাচল শুরু হলেও এই দুই রুটে সেই বাস চলছে হাতে গোনা কয়েকটি। দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমান ধর্মতলা রুটে মাত্র চারটি বাস যাতায়াত করছে। বর্ধমান করুনাময়ী রুটে যাতায়াত করছে দুটি বাস। সেখানে যাত্রীদের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ফলে অনেকেই বাসের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বাধ্য হচ্ছেন।

দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় সংবাদ পরিবহন সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমান ধর্মতলা ও বর্ধমান করুনাময়ী রুটে চালানোর জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক বাস এই মুহূর্তে তাদের হাতে নেই। কারণ প্রতিদিনই বর্ধমান স্টেশনে দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে বিশেষ ট্রেনে হাজার হাজার যাত্রী নামছেন। সেইসব যাত্রীদের অনেকেই জেলার দূরবর্তী প্রান্ত বা রাজ্যের অন্যান্য জেলার বাসিন্দা। পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন সরকারি বাসে সেই সব যাত্রীদের পৌঁছে দিচ্ছেন। সেই কাজে প্রতিদিনই যুক্ত থাকছে বেশ কয়েকটি সরকারি বাস।সে কারণেই এই দুই রুটে যাত্রীদের চাহিদামত পর্যাপ্ত সংখ্যক বাস দেওয়া যাচ্ছে না। তবে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বাসের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: June 4, 2020, 4:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर