দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

পানীয় জল মিলছে না, পুরসভার ভূমিকায় ক্ষুব্ধ বর্ধমান শহরের বাসিন্দারা

পানীয় জল মিলছে না, পুরসভার ভূমিকায় ক্ষুব্ধ বর্ধমান শহরের বাসিন্দারা

শহরের অনেক এলাকাতেই পানীয় জলের সংকট রয়েছে। অনেক বাড়িতেই এখনও পানীয় জলের সংযোগ দিতে পারেনি বর্ধমান পৌরসভা।

  • Share this:

#বর্ধমান: সময়সীমা পার হয়ে গেলেও জল প্রকল্পের সুবিধা না মেলায় ক্ষুব্ধ বর্ধমান শহরের বাসিন্দারা।শহরের অনেক এলাকাতেই পানীয় জলের সংকট রয়েছে। অনেক বাড়িতেই এখনও পানীয় জলের সংযোগ দিতে পারেনি বর্ধমান পৌরসভা। আবার মাটির তলার জল স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় বেশিরভাগ টিউবওয়েল অকেজো হয়ে গিয়েছে। ফলে একমাত্র জল প্রকল্প পানীয় জল সংকট মেটানোর অন্যতম ভরসা ছিল। কিন্তু সময়সীমার এক বছর পেরিয়ে গেলেও সেই জল প্রকল্প আজও বাস্তবায়িত না হওয়ায় ক্ষুব্ধ বাসিন্দারা।

বর্ধমান শহরে ইতিমধ্যেই একশো কোটি টাকা খরচ করে মাটির তলায় পাইপ লাইন বসানো হয়ে গিয়েছে। তৈরি হয়েছে বিশাল বিশাল জলাধার। অথচ যেখান থেকে জল আসার কথা সেই দামোদর থেকে প্রয়োজনীয় জল মিলবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে বিশেষজ্ঞরা। আর তাতেই একরকম মুখ থুবড়ে পড়েছে এই জল প্রকল্প। সব মিলিয়ে বর্ধমানের বহু প্রতীক্ষিত তিনশো কোটি টাকার জল প্রকল্প এখন বড় প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়ে।

বর্ধমান শহরে পানীয় জলের সমস্যা দীর্ঘদিনের। বহু এলাকাতেই এখনো পাইপ লাইনে পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছে দিতে পারেনি পুরসভা। মাটির তলা থেকে জল তুলে যে জল পাইপ লাইনের সরবরাহ করা হয় তা প্রয়োজনের তুলনায় অনেকটাই কম। তাই পরিস্রুত পানীয় জলের সমস্যা দূর করতে জহরলাল নেহেরু ন্যাশনাল আরবান রিনিউয়াল মিশন প্রকল্পে দামোদর থেকে জল তলে তা সরবরাহের পরিকল্পনা নেওয়া হয়। সেই মতো অটল মিশন ফর রিজুভেনেশন এন্ড আরবান ট্রান্সফর্মেশন বা আমরুত প্রকল্পে এই কাজ শুরু করা হয়।

এক বছর আগেই এই প্রকল্পের কাজ শেষ হয়ে পুর বাসিন্দাদের ঘরে ঘরে সে জল পৌঁছে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, প্রকল্প শেষ হওয়া দূরের কথা দামোদর থেকে প্রয়োজনে জল পাওয়া নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছে। অন্যদিকে প্রয়োজনের পানীয় জলটুকুও না পেয়ে চরম সমস্যার মধ্যে দিিন কাটাতে হচ্ছে বাসিন্দাদের অনেককেই।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: October 14, 2020, 9:32 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर