দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে শহরের বাইরে ঘুরতে যাওয়ার হিড়িক! বর্ধমানে অভিযান পুলিশের

লকডাউনে শহরের বাইরে ঘুরতে যাওয়ার হিড়িক! বর্ধমানে অভিযান পুলিশের

পুলিশের বক্তব্য, এখন শহর জুড়ে করোনার সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বেড়ে গিয়েছে। তাই ঘর থেকে না বের হওয়াই উচিত। কিন্তু অনেকেই সেসব বিধিনিষেধ ভুলে অসচেতনতার পরিচয় দিচ্ছেন। ফাঁকা রাস্তা পেয়ে লং ড্রাইভে বের হচ্ছেন।

  • Share this:

#বর্ধমান: বুধবার থেকে বর্ধমানে একটানা লকডাউন চলছে। লকডাউনে সন্ধ্যার পর গাড়ি নিয়ে বাইরে বের হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে।  অনেকেই এখন শহরের বাইরের হোটেল ধাবায় রাতের খাবার খেতে যাচ্ছেন। সেই খবর পেয়ে লকডাউন পুরোপুরি নিশ্চিত করতে অনেক রাত পর্যন্ত বর্ধমানে অভিযান চালাল পুলিশ। কোনও কারণ ছাড়াই লকডাউন ভেঙে বাইরে বের হওয়ার অভিযোগে বর্ধমানে বেশ কয়েকটি গাড়ি ও তার আরোহীদের আটক করল পুলিশ।

রবিবার রাত আটটা থেকে অনেক রাত পর্যন্ত বর্ধমান শহরজুড়ে অভিযান চালায় পুলিশ।  মোটর সাইকেল ও চারচাকা গাড়ি দাঁড় করিয়ে তল্লাশি  চালানোর পাশাপাশি আরোহীদের রাতে রাস্তায় বের হওয়ার কারণ জানতে চাওয়া হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া এক পুলিশ অফিসার জানান, অনেকে চিকিৎসার প্রয়োজনের কথা জানিয়েছেন। কেউ কেউ ওষুধ আনতে বেরিয়েছিলেন। তবে অনেকে আবার তেমন গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজন ছাড়াই গাড়ি নিয়ে বের হয়েছিলেন। তাদের কাছ থেকে সন্তোষজনক উত্তর না মেলায় সেখান থেকেই তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সারাদিন বাসিন্দারা সেভাবে পথে না বের হলেও অনেকেই সন্ধ্যের পর সপরিবারে গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়ছেন বলে খবর আসছিল বর্ধমান থানার পুলিশের কাছে। বর্ধমান শহরে বুধবার সকাল থেকে টানা লকডাউন চলছে। কিন্তু শহরের বাইরের এলাকা সেই লক ডাউনের আওতার বাইরে। আর তাই অনেকেই শহর ছাড়িয়ে দু নম্বর জাতীয় সড়কে বিভিন্ন হোটেলে রাতের খাওয়া সেরে বাড়ি ফিরছেন। অনেকে গলসি, পানাগড় চলে যাচ্ছেন। অনেকে আবার যাচ্ছেন শক্তিগড়, জৌগ্রাম এমনকি সিঙ্গুর পর্যন্ত।  তাদের চিহ্নিত করতে অভিযানে নামে পুলিশ।

বর্ধমান শহরের উল্লাস মোড়, নবাবহাট মোড়, বীরহাটা, কার্জন গেট, পার্কাস রোড মোড় এলাকায় অভিযান চালায় বর্ধমান থানার বিরাট পুলিশ বাহিনী। রাস্তায় কার্যত নাকা চেকিং চালানো হয়। প্রতিটি চারচাকা গাড়ি ও মোটর সাইকেল ধরে ধরে জিজ্ঞাসাবাদ চলে। লকডাউন ভাঙার অভিযোগে মোট আঠারো জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে বর্ধমান থানা সূত্রে জানা গিয়েছে। পুলিশের বক্তব্য, এখন শহর জুড়ে করোনার সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বেড়ে গিয়েছে। তাই ঘর থেকে না বের হওয়াই উচিত। কিন্তু অনেকেই সেসব বিধিনিষেধ ভুলে অসচেতনতার পরিচয় দিচ্ছেন। ফাঁকা রাস্তা পেয়ে লং ড্রাইভে বের হচ্ছেন। তা থেকে তাঁরা যে বিপদ ডেকে আনছেন সে ব্যাপারে বাসিন্দাদের সতর্ক করতেই এই অভিযান চালানো হয়।

Published by: Pooja Basu
First published: July 28, 2020, 8:51 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर