corona virus btn
corona virus btn
Loading

বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের শিশু বিভাগের নার্স করোনা আক্রান্ত! বীরভূমে পরিস্থিতি দুঃশ্চিন্তার

বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের শিশু বিভাগের নার্স করোনা আক্রান্ত! বীরভূমে পরিস্থিতি দুঃশ্চিন্তার

জানা গিয়েছে, ওই নার্সের সংস্পর্শে এসেছিলেন তিনজন চিকিৎসক, শিশু বিভাগের ১০ জন স্বাস্থ্য কর্মী ও নার্সিং হোস্টেলে তার বেশ কয়েকজন সহকর্মী।

  • Share this:

#বোলপুর: লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে বীরভূমে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বীরভূমে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪১ জন,  সুস্থ হয়েছেন ৩০৮ জন। বর্তমানে বীরভূমের কোভিড হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন ৩০ জন।  বীরভূমে বর্তমানে কন্টেইমেন্ট জোন ৩৫টি। রামপুরহাট,  বোলপুর ও সিউড়ি মহকুমায় রয়েছে এই জোনগুলি।

সাঁইথিয়াতে আক্রান্ত ৭ বছরের এক শিশু৷  রামপুরহাটে আক্রান্ত এক দম্পতি,  বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের শিশু বিভাগের এক নার্স আক্রান্ত। বোলপুর মহকুমা  হাসপাতালের শিশু বিভাগের ওই নার্স । ওই নার্সের সংস্পর্শে আসা চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও নার্সিং স্টাফদের এ দিন লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ২৭ বছরের ওই নার্সের বাড়ি হাওড়া জেলার সাঁতরাগাছি এলাকায়। এখানে তিনি নার্সিং হোস্টেলে থাকতেন । তিনি বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের শিশু বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন। বেশ কয়েকদিন ধরেই তিনি গলা ব্যথার একটি সমস্যায় ভুগছিলেন। রুটিন মাফিক শনিবার ওই নার্স সহ বাকি স্বাস্থ্যকর্মীদের করোনা পরীক্ষার জন্য লালারসের নমুনা  সংগ্রহ করা হয়।

তারপর মঙ্গলবার সকালে ওই নার্সের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। আর এতেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা হাসপাতাল জুড়ে । কারণ সোমবার সকাল পর্যন্ত ওই নার্স বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে শিশু বিভাগে ডিউটি করার পর বাড়ি যান। এদিন তার  রিপোর্ট পজিটিভ আশায় স্বভাবতই আতঙ্ক ছড়িয়েছে শিশু বিভাগেও কারণ এই মুহূর্তে ওই বিভাগে ভর্তি রয়েছে ৩০ জন সদ্যোজাত শিশু ও তাদের মায়েরা।

জানা গিয়েছে, ওই নার্সের সংস্পর্শে এসেছিলেন তিনজন চিকিৎসক, শিশু বিভাগের ১০ জন স্বাস্থ্য কর্মী ও নার্সিং হোস্টেলে তার বেশ কয়েকজন সহকর্মী । এদিন তাদের প্রত্যেকেরই লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য সিউরি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কিন্তু সমগ্র হাসপাতাল জুড়ে স্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যাহত হবে এই ভেবে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়নি । হাসপাতালের তরফ থেকে ওই শিশু বিভাগটিকে মঙ্গলবার স্যানিটাইজ করা হয় ।এই বিষয়ে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপার দিপ্তেন্দু দত্ত বলেন, মঙ্গলবার সকালেই আমরা জানতে পারি শিশু বিভাগের দায়িত্বে থাকা ওই নার্সের শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। ওই নার্সের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছিলেন তাদের লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এবং আর কেউ ওই নার্সের সংস্পর্শে এসেছিলেন কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে । বাড়ি থেকে এদিন ওই নার্সকে বোলপুর কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ।

SUPRATIM DAS

Published by: Arindam Gupta
First published: July 16, 2020, 4:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर