Home /News /south-bengal /
Howrah: এমআরআই মেশিনে দু' ঘণ্টা আটকে রোগী! হাওড়ায় নার্সিং হোমের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ

Howrah: এমআরআই মেশিনে দু' ঘণ্টা আটকে রোগী! হাওড়ায় নার্সিং হোমের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ

হাওড়ার নার্সিং হোমে রোগীর পরিবারের বিক্ষোভ৷

হাওড়ার নার্সিং হোমে রোগীর পরিবারের বিক্ষোভ৷

এই ঘটনা দেখেই সঙ্গে সঙ্গে পরিচিতদের খবর দিয়ে নার্সিং হোমে আসতে বলেন গৃহবধূর স্বামী৷ এ দিকে মেশিনের ভিতরে আটকে থেকে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই গৃহবধূ৷

  • Share this:

#হাওড়া: এমআরআই মেশিনের ভিতরেই দু' ঘণ্টা আটকে থাকলেন রোগী! এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠল হাওড়ার ডোমজুড়ের একটি নার্সিং হোমের বিরুদ্ধে৷ রোগীর পরিবারের আরও অভিযোগ, প্রশিক্ষণ বিহীন কর্মীকে দিয়েই এমআরআই-এর মতো গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা করাতে গিয়েই এই বিপত্তি৷ ক্ষুব্ধ রোগীর পরিবারের বিক্ষোভে দীর্ঘক্ষণ ধরে ওই নার্সিং হোমে অচলাবস্থা তৈরি হয়৷ শেষ পর্যন্ত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এক কর্মীকে নিয়ে এসে ওই রোগীকে এমআরআই মেশিন থেকে বের করা হয়৷

মুমতাজ বেগম নামে ওই রোগীর পরিবারের অভিযোগ, এ দিন বিকেলে এমআরআই করানোর জন্য ওই গৃহবধূকে ডোমজুড়ের নার্সিং হোমে আনা হয়৷ কিন্তু এমআরআই করাতে নিয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘক্ষণ কেটে গেলেও রোগীকে বের করা হচ্ছে না দেখে এমআরআই রুমে ঢুকে পড়েন ওই যুবতীর স্বামী৷ তাঁর দাবি, যে কর্মী এমআরআই মেশিন চালাচ্ছিলেন, তার সে সম্পর্কে কোনও ধারণাই ছিল না৷ ফোনে অন্য কারও থেকে শুনে শুনে মেশিন চালাচ্ছিলেন তিনি৷

অভিযোগ ওই কর্মীর ভুলেই পরীক্ষা চলতে চলতেই মাঝপথে আটকে যায় মেশিন৷ তখন রোগীর শরীরের অর্ধেক এমআরআই মেশিনের ভিতরে৷ ফলে তাঁকে বের করে আনাও সম্ভব হয়নি৷

আরও পড়ুন: পার্থর স্ত্রী'র শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে পাঠিয়েছিলেন ট্রাক ভর্তি চিংড়ি! ফের আলোচনায় ভগবানপুরের 'নান্টু প্রধান'! কেন উঠছে বার বার নাম?

এই ঘটনা দেখেই সঙ্গে সঙ্গে পরিচিতদের খবর দিয়ে নার্সিং হোমে আসতে বলেন গৃহবধূর স্বামী৷ এ দিকে মেশিনের ভিতরে আটকে থেকে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই গৃহবধূ৷ নার্সিং হোমে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন রোগীর পরিবারের সদস্যরা৷ শেষ পর্যন্ত অন্য একজন কর্মীকে ডেকে এনে মেশিন চালু করে ওই রোগীকে বের করে আনা হয়৷

এই ঘটনার জেরে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায়৷ ডোমজুড় থানাতেও অভিযোগ জানাতে যান রোগীর আত্মীয়রা৷ শেষ পর্যন্ত অবশ্য অভিযোগ দায়ের করেননি তাঁরা৷ এই ঘটনায় নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ অন্যান্য রোগীর আত্মীয়রাও ঘটনা শুনে আতঙ্কিত৷ নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষের তরফে অবশ্য কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷ তবে যে কর্মী এসে ওই মহিলাকে এমআরআই মেশিন থেকে বের করেন, তাঁর দাবি তিনি এ দিনই ওই নার্সিং হোমে কাজে যোগ দিয়েছেন৷ তাঁর আগে অন্য একজন কর্মী মেশিন চালাচ্ছিলেন৷ ওই কর্মী প্রশিক্ষিত কি না, তা তিনি বলতে পারবেন না৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Howrah

পরবর্তী খবর