থমথমে লাভপুর, গোটা দরবারপুর জুড়ে শুধুই আতঙ্ক

পুরুষশূন্য গোটা গ্রাম। এলাকায় চলছে পুলিশি তল্লাশি।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 22, 2017 03:17 PM IST
থমথমে লাভপুর, গোটা দরবারপুর জুড়ে শুধুই আতঙ্ক
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 22, 2017 03:17 PM IST

#বীরভূম: গ্রামের মধ্যেই বোমাবাঁধা। শুক্রবার, সেখানেই সংঘর্ষ। বিস্ফোরণে নয় জনের মৃত্যু। ঘটনার পর থমথমে লাভপুরের দরবারপুর। বিস্ফোরণস্থল ঘুরে দেখল ইটিভি নিউজ বাংলা। পুরুষশূন্য গোটা গ্রাম। এলাকায় চলছে পুলিশি তল্লাশি।

বালিখাদানের দখলদারি নিয়ে রেষারেষি। গ্রামের এককোণে তৈরি হয়েছিল বারুদের স্তূপ। শুক্রবার, দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে কার্যত আগুন জ্বলে ওঠে লাভপুরের দ্বারকা গ্রাম পঞ্চায়েতের দরবারপুরে।

কিন্তু, কেন বেছে নেওয়া হল ওই নির্মীয়মাণ বাড়ি? শুক্রবারের ঘটনার রেশ এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি দরবারপুর। যাঁরা আছেন তাঁদের চোখেমুখেও আতঙ্কের ছাপ স্পষ্ট। গোটা গ্রাম এখন পুরুষশূন্য। নিহতদের বাড়িতে শুরু কান্নার রোল। এলাকায় জারি পুলিশের তল্লাশি অভিযান।

দরগাপুরে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাঁধে সিপিএম ও তৃণমূলের মধ্যে। চলে বোমাবাজি। ইট-লাঠিসোটা নিয়ে তাণ্ডব চালায় দুষ্কৃতীরা। নিরীহ গ্রামবাসীদের ঘরবাড়ি অবাধে ভাঙচুর করে উভয়পক্ষই। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। পুলিশ পৌঁছতেই ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় দু’দলের দুষ্কৃতীরা। কিন্তু ততক্ষণের মতো রণে ভঙ্গ দিলেও দ্বারকা গ্রামে গিয়ে ফের লড়াইয়ের প্রস্তুতি চলতে থাকে। সন্ধেয় সংঘর্ষের জন্য পরিত্যক্ত একটি বাড়িতে বোমা বাঁধা হয়। সেইসময় বোমা ফেটে মারা যায় কয়েকজন। পরে হাসপাতালে আরও কয়েকজনের মৃত্যু হয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের ভিন্নমতে, বোমাবাজিতে না কি বোমা ফেটে মৃত্যু তা নিয়ে ধন্ধ তৈরি হয়েছে।

যদিও বীরভূম তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের দাবি,ওই গ্রামে বালিখাদান দখল নিয়ে সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীদের লড়াই দীর্ঘদিনের। সেইকারণেই বোমা বাঁধা হচ্ছিল। বোমা ফেটেই মৃত্যু হয়েছে কয়েকজন দুষ্কৃতীর।

Loading...

ঘটনার পর দ্বারকায় পৌঁছন বোলপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার । বোমাবাজির পর থেকে থমথমে দরগাপুর, দ্বারকা গ্রাম। ভয়ে অনেকেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়েছেন। গ্রামগুলিতে আরও কোনও দেহ আছে কি না তা খুঁজে দেখছে পুলিশ।

First published: 03:17:00 PM Apr 22, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर