• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বর্ধমানে জঙ্গি সন্দেহে ধৃত যুবক

বর্ধমানে জঙ্গি সন্দেহে ধৃত যুবক

 সোমবার রাতে বর্ধমান স্টেশন থেকে এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ ধৃতের নাম মহম্মদ মসিউদ্দিন ওরফে মুসা ৷

সোমবার রাতে বর্ধমান স্টেশন থেকে এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ ধৃতের নাম মহম্মদ মসিউদ্দিন ওরফে মুসা ৷

সোমবার রাতে বর্ধমান স্টেশন থেকে এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ ধৃতের নাম মহম্মদ মসিউদ্দিন ওরফে মুসা ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #বর্ধমান: ঢাকা বিস্ফোরণের রেশ কাটতে না কাটতেই রাজ্যে ফের আইএস জঙ্গির হদিশ ৷  সোমবার রাতে বর্ধমান স্টেশন থেকে এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ ধৃতের নাম মহম্মদ মসিউদ্দিন ওরফে মুসা ৷ দীর্ঘদিন ধরেই তার গতিবিধির নজর রাখছিল NIA ৷ রাজ্য সরকারকে দেওয়া NIA-র তথ্যের ভিত্তিকে আটক করা হয় ধৃতকে ৷ আপ বিশ্বভারতী ফাস্ট প্যাসেঞ্জার থেকে আটক করা হয় তাকে ৷

    সূত্রের খবর, মুসার সঙ্গে সিরিয়া ও আফগানিস্তানের যোগাযোগ রয়েছে ৷ সেখান থেকে নিয়মিত টাকাও আসত বলে খবর ৷ ধৃতের কাছ থেকে একটি ভোজালি ও এয়ারগান মিলেছে ৷ ৩ জনকে খুনের টার্গেট ছিল মুসার বলে জানা গিয়েছে ৷

    বীরভূমের লাভপুরের বিডিও অফিসপাড়ার বাসিন্দা ধৃত ৷ চেন্নাই থেকে লাভপুর ফিরছিল মসিউদ্দিন ৷ মিলেছে চেন্নাইয়ের ট্রেনের টিকিট ৷ পাশাপাশি মিলেছে তামিলনাড়ুর ত্রিপুর জেলার ঠিকানা ও আন্ধিপলায়ম এলাকার একটি ঠিকানা মিলেছে ৷ সেখান থেকে জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখত বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের ৷

    তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে যে লাভপুরে তিনজনকে হত্যা করার পরিকল্পনা ছিল তার ৷ ওই জঙ্গি সাত থেকে আটখানা ভাষায় পারদর্শী বলে জানা গিয়েছে ৷

    ধৃত মহম্মদ মসিউদ্দিন বর্ধমান জিআরপি থানা থেকে আজ কলকাতায় আনা হয়েছে ৷ কড়া নিরাপত্তায় মসিউদ্দিনকে কলকাতার ভবানী ভবনে  আনা হয়েছে৷ দফায়-দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে তাকে ৷ আফগানিস্তান ও সিরিয়ায় কাদের সঙ্গে যোগাযোগ? বাংলাদেশে কাদের সঙ্গে যোগাযোগ মুসার? জেরায় জানতে চাইবেন গোয়েন্দারা ৷

    ঢাকায় জঙ্গি হানার পর থেকেই সতর্ক এনআইএ। প্রতিবেশী দেশ থেকে এরাজ্যেও ঢুকতে পারে জঙ্গিরা। আশঙ্কা তদন্তকারী সংস্থার। এদিকে গুলসনে নাশকতার পর নিরাপত্তা আঁটোসাটো করা হয়েছে কলকাতা ও রাজ্যের সীমান্তবর্তী এলাকাগুলি। বিশেষ করে জলপথ গুলিতে নিরাপত্তাব্যবস্থা আরও কঠোর করেছে বিএসএফ। বাড়তি তল্লাশি চালানো হচ্ছে কলকাতা বিমানবন্দর ও রেল স্টেশনগুলিতে।

    তুরস্কের বিমানবন্দরে জঙ্গি হামলার পরই নিরাপত্তা ব্যবস্থা আটোসাটো করা হয়েছিল কলকাতায়। যা খানিকটা থিতিয়ে যেতেই ফের জঙ্গি হানার ঘটনা। এবার দোরগোড়া ঢাকায়।

    এছাড়াও শহরের বিভিন্ন জনবহুল এলাকা, বিশেষ করে দর্শনীয় স্থান, নামী রেস্তোরাঁগুলিতে নজরদারি বাড়িয়েছে কলকাতা পুলিশ। নজর রাখা হচ্ছে হাওড়া, শিয়ালদহ স্টেশনের মতো শহরে ঢোকার জায়গাগুলিতে ৷

    First published: