পূর্ব বর্ধমানে এল এক কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী, রয়েছেন ৭২ জন জওয়ান

আগামিকাল থেকে পূর্ব বর্ধমানের স্পর্শকাতর ও অতি স্পর্শকাতর এলাকাগুলিতে এরিয়া ডোমিনেশনের কাজ করবে এই বাহিনী ।

আগামিকাল থেকে পূর্ব বর্ধমানের স্পর্শকাতর ও অতি স্পর্শকাতর এলাকাগুলিতে এরিয়া ডোমিনেশনের কাজ করবে এই বাহিনী ।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: বিধানসভা নির্বাচনের জন্য শনিবার সকালে পূর্ব বর্ধমান জেলায় এলো কেন্দ্রীয় বাহিনী। এ দিন সকালে বর্ধমান স্টেশনে নেমেছে এক কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। এই বাহিনী পূর্ব বর্ধমান জেলার বিভিন্ন প্রান্তে এরিয়া ডোমিনেশনের কাজ করবে। বিশেষ এই ট্রেনে বারো কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আছে। বর্ধমানের এক কোম্পানি ছাড়াও দুর্গাপুরে দুই কোম্পানি, ডানকুনিতে পাঁচ কোম্পানি ও কলকাতায় নেমেছে চার কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। কাশ্মীর থেকে বিশেষ ট্রেনে এসেছে এই কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা। বর্ধমান স্টেশনে এই কেন্দ্রীয় বাহিনীকে স্বাগত জানাতে উপস্হিত ছিলেন সি আর পি আধিকারিক ও রাজ্য পুলিশের পদস্থ আধিকারিকরা।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর জন্য পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে একজন নোডাল অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। আজ বিশ্রামের পর আগামিকাল থেকে পূর্ব বর্ধমানের স্পর্শকাতর ও অতি স্পর্শকাতর এলাকাগুলিতে এরিয়া ডোমিনেশনের কাজ করবে এই বাহিনী বলে সূত্রের খবর। মূলত ভোটারদের মনোবল বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যেই এই এরিয়া ডোমিনেশন বলে জেলা প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে।

এ দিন ভোরেই কাশ্মীর থেকে আসা বিশেষ ট্রেনে বর্ধমান স্টেশনে ঢোকার কথা ছিল। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তেমনই প্রস্তুতি নেওয়া হয়। দুর্গাপুর স্টেশনে দুই কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী নামে। সেখানে এক একটি কোম্পানিতে একশো করে জওয়ান রয়েছে। দুর্গাপুর থেকে এক কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী বীরভূম জেলার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। আর এক কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী বাঁকুড়া জেলায় পাঠানো হয়েছে। সকাল সাড়ে ন’টা নাগাদ কেন্দ্রীয় বাহিনী বিশেষ ট্রেন বর্ধমান স্টেশনে ঢোকে। পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রথম পর্যায়ে এল এক কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। তাতে রয়েছেন বাহাত্তর জন জওয়ান।

ভোটের নির্ঘণ্ট এখনও ঘোষণা করেনি নির্বাচন কমিশন। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হওয়ার কথা। তার আগেই পূর্ব বর্ধমান জেলায় ভোট কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। বিভিন্ন স্কুলে পর্যায় ক্রমে সেই প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ চলছে। তার মধ্যেই জেলায় এসে গেল কেন্দ্রীয় বাহিনী। বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে জোরকদমে প্রচার শুরু করে দিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। জেলার নানা প্রান্তে রাজনৈতিক অশান্তির আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। ভোট পর্ব শান্তিপূর্ণ রাখতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কেন্দ্রীয় বাহিনী আনার দাবি জানাচ্ছিল রাজনৈতিক দলগুলি।

Published by:Simli Raha
First published: