Bangla News: নীচে পড়ে টর্চ-টুল, ভোররাতে তেঁতুল গাছে চোখ যেতেই আঁতকে উঠলেন গ্রামবাসীরা!

আতঙ্ক ছড়াল গ্রামে

Bangla News: আমফান ঝড়ে ভেঙে পড়া সেই তেঁতুল গাছের ডালে কাপড়ের ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন অমৃতবেড়িয়ার বাসিন্দা বৃদ্ধা বিধবা হেনা মহাপাত্র।

  • Share this:

#মহিষাদল: সাত সকালে মন খারাপের খবর, মর্মান্তিক মৃত্যুর খবর! মানসিক যন্ত্রণা কষ্ট সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে তেঁতুল গাছে ঝুলে আত্মঘাতী ৮০ বছরের বৃদ্ধা! তখনও ভোরের আলো ঠিকমতো ফুটে ওঠেনি। আবছা আলো আর অন্ধকারের মধ্যেই আশি বছর বয়সের বৃদ্ধা বাড়ির পাশের একটি তেঁতুল গাছের কাছে পৌঁছে যান। আমফান ঝড়ে ভেঙে পড়া সেই তেঁতুল গাছের ডালে কাপড়ের ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন অমৃতবেড়িয়ার বাসিন্দা বৃদ্ধা বিধবা হেনা মহাপাত্র।

বাড়ি থেকে নিজেই বেরিয়ে গিয়ে গলায় নিজের কাপড়ের ফাঁস লাগিয়ে গাছের ডালে ঝুলে পড়েন তিনি, এমনটাই জানিয়েছেন স্থানীয়রা। একেবারে মর্মান্তিক মৃত্যু! ভোর রাতে প্রায় তিনটে নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে মহিষাদল থানার অমৃতবেড়িয়া গ্রামের দক্ষিণ পল্লীতে। একজন আশি বছরের বৃদ্ধার এভাবে মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না কেউই। তাই মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়তেই গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মৃত বৃদ্ধার নাম হেনা গজেন্দ্র মহাপাত্র(৮০)। স্বামীর নাম শংকর প্রসাদ গজেন্দ্র মহাপাত্র। প্রায় ১৪ বছর আগে হেনাদেবীর স্বামী মারা যান বলে জানা গিয়েছে। তিনি প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক ছিলেন। স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে হেনাদেবী স্বামীর পেনশন পেতেন। হেনাদেবীর দুই ছেলে রয়েছে। প্রতিবেশিরা জানান, হেনাদেবী ছোট ছেলের কাছেই থাকতেন। বিভিন্ন কারণে খুব কষ্টেই দিন কাটাতেন। মানসিক যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরেই এই আত্মহত্যা বলে তাঁদের দাবি।

আরও পড়ুন: গল্প নয়, সত্যি! বড় ইলিশের দাম ২৫০ টাকা কিলো! চলছে মাইকিং, চাই নাকি?

মনের দুঃখেই এদিন প্রায় মাঝরাতে নিজের রুম থেকে বেরিয়ে পড়েছিলেন তিনি। অন্ধকার রাস্তা পেরিয়ে যাতে গাছের কাছে ঠিকঠাক পৌঁছাতে পারেন, সেকথা মাথায় রেখে হাতে টর্চ লাইট নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে প্লাস্টিকের একটি টুলও নিয়ে যান আত্মহত্যার জন্য। বাড়ি থেকে একটু দূরে একটি বড় তেঁতুল গাছ, যেটি আবার গতবছর আমফান ঝড়ে ভেঙে পড়েছে, সেই গাছের ডালেই কাপড়ের ফাঁস লাগিয়ে টুলের উপর দাঁড়িয়ে হেনাদেবী আত্মহত্যা করেন। খবর পেয়ে মহিষাদল থানার পুলিশ মৃতদেহটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। সকাল সকাল হেনাদেবীকে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারাই। খবর জানাজানি হতেই প্রতিবেশিরা ছুটে গিয়ে দেখেন, তেঁতুলগাছের তলায় পড়ে আছে জুতো জোড়া, টর্চ লাইট আর প্লাস্টিকের টুল এবং গাছে ঝুলছে আশি বছরের বৃদ্ধার দেহ!

Published by:Suman Biswas
First published: