স্বীকৃতি সম্মেলনে প্রবীনদের মাস্ক পরালো তৃনমূল! কোথায়?

স্বীকৃতি সম্মেলনে প্রবীনদের মাস্ক পরালো তৃনমূল! কোথায়?

স্বীকৃতি সম্মেলনে প্রবীন কর্মী নেতাদের মাস্ক পরালো তৃনমূল কংগ্রেস।

  • Share this:

#বর্ধমান: স্বীকৃতি সম্মেলনে প্রবীন কর্মী নেতাদের মাস্ক পরালো তৃনমূল কংগ্রেস। করোনা ভাইরাসের সতর্কতা হিসেবেই এই উদ্যোগ। পূর্ব বর্ধমানের অনেক জায়গাতেই এই কর্মসূচি পালিত হয়। দলীয় নেতৃত্ব বলছেন, যা কিছু কর্মসূচিই পালিত হোক না কেন মারণ করোনা ভাইরাসকে উপেক্ষা করা যাচ্ছে না। বাসিন্দাদের আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন ও সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। সেজন্যই কিছু কিছু জায়গায় কর্মীদের মধ্যে এই মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

রবিবার রাজ্য জুড়ে স্বীকৃতি সম্মেলন কর্মসূচি পালন করে তৃনমূল কংগ্রেস। পূর্ব বর্ধমান জেলার ষোলটি বিধানসভা এলাকাতেই এই কর্মসূচি পালিত হয়। পূর্বস্থলী দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ পূর্বস্থলী এক ব্লকের নসরতপুরে এই কর্মসূচি পালন করেন। তবে শুধুমাত্র দলীয় বিধায়কদেরই এই কর্মসূচি পালনের নির্দেশ দেওয়া হলেও অনেক জায়গাতেই বিধায়ক ছাড়াও নেতাদের উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এতে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ উঠেছে দলের মধ্যেই।

বর্ধমান উত্তর বিধানসভা এলাকাতেই তিনটি স্বীকৃতি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিধায়ক নিশীথ মালিক রায়ানে এই কর্মসূচি পালন করেন। আবার সড্ডে হাইস্কুলে একই কর্মসূচি পালন করেন তৃনমূল নেতা তথা বর্ধমান দুই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি  শ্যামল দত্ত। ওই বিধানসভা এলাকার নবাবহাটের বালিঘাট মোড়ে একই কর্মসূচি পালন করেন তৃণমূল নেতা নুরুল হাসান। তিনি বলেন, বিধায়ক অনেক প্রবীণ ব্যক্তিকে খবর দিতে পারেননি। তাঁরা দুঃখ প্রকাশ করছিলেন। আমি উদ্যোগ নিয়ে তাঁদের সম্মান জানিয়েছি। শ্যামলবাবু সংবাদ মাধ্যমকে জানান, কে কী করল সেটা বড় কথা নয়। দলের পুরনো কর্মীদের সম্মান জানানো হল এটাই বড় কথা।

তৃনমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি স্বপন দেবনাথ বলেন, আগে দল করতেন এখন বসে গিয়েছেন এমন পুরনো কর্মীদের সম্মান জানানো হল। তাঁরাও ফের দলের হয়ে সক্রিয় ভাবে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন। তবে এই কর্মসূচি পালনের দায়িত্ব শুধুমাত্র বিধায়কদেরই দেওয়া হয়েছিল। অন্য কেউ করে থাকলে তারা ঠিক কাজ করেননি। দল সেসব নজর রাখছে।

Saradindu Ghosh

First published: March 15, 2020, 8:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर