দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

মন্তেশ্বর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নার্স ও স্বাস্থ্য আধিকারিক করোনা আক্রান্ত !পরিষেবায় সমস্যা !

মন্তেশ্বর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নার্স ও স্বাস্থ্য আধিকারিক করোনা আক্রান্ত !পরিষেবায় সমস্যা !

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মন্তেশ্বরের কাদম্বিনী ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গত মঙ্গলবার এক নার্স করোনা আক্রান্ত হন।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনা সংক্রমণের জেরে পূর্ব বর্ধমানের মন্তেশ্বরের ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা পরিষেবা অনিয়মিত হয়ে পড়েছে। শুক্রবার ওই হাসপাতালের বহির্বিভাগ বন্ধ রাখা হয়েছিল। ইতিমধ্যেই হাসপাতাল চত্বর স্যানিটাইজ করা হয়েছে। ওই প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এক নার্স ও স্বাস্থ্য আধিকারিক করোনা আক্রান্ত হওয়ায় উদ্বিগ্ন এলাকার বাসিন্দারা। ওই হাসপাতালে আক্রান্ত দুজনের সংস্পর্শে আসা বাকি চিকিৎসক-নার্স স্বাস্থ্যকর্মীদের হোম আইসোলেশনে  পাঠানো হয়েছে। তাদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মন্তেশ্বরের কাদম্বিনী ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গত মঙ্গলবার এক নার্স  করোনা আক্রান্ত হন। সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন বাসিন্দারা। শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবা ছাড়া বাকি সব পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপর বৃহস্পতিবার ফের  এক স্বাস্থ্য আধিকারিকের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। বর্তমানে ওই আধিকারিক বর্ধমানের কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি মন্তেশ্বরের ওই হাসপাতালে কর্মরত ছিলেন।

এই ঘটনার পরই জরুরি পরিষেবা ছাড়া বাকি সব পরিষেবা বন্ধ রেখে হাসপাতাল বিল্ডিং স্যানিটাইজ করা হয়। জেলা স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রর  এক আধিকারিক ও  নার্স করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তাদের সংস্পর্শে আসা বাকিদেরও হোম আইসোলেশনে পাঠাতে হয়েছে। ফলে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক নার্সের সংখ্যা হঠাৎ করে কমে যাওয়ায় পরিষেবা সামাল দেওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে। এই পরিস্থিতির মধ্যে দাঁড়িয়ে কিভাবে পরিষেবা চালিয়ে যাওয়া যায় তা দেখা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই সেখানের বিল্ডিং স্যানেটাইজ করা হয়েছে। দু একদিনের মধ্যেই  সব পরিষেবা স্বাভাবিক করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এদিকে এই ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকার বাসিন্দারা। স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি রোগী ও তাদের পরিজনেরা উদ্বেগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। এই হাসপাতালের ওপর আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রামের কয়েক হাজার বাসিন্দা নির্ভরশীল। প্রতিদিনই হাসপাতালে ব্যাপক ভিড় হয়। কিন্তু দু জন করোনা আক্রান্তের খবর চাউর হয়ে যেতেই সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কায় অনেকেই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ধার দিয়ে যাচ্ছেন না! জেলা স্বাস্থ্য দফতর বলছে, অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নাই। মন্তেশ্বর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডাক্তার নার্স ফার্মাসিস্ট স্বাস্থ্য কর্মী সহ সকলের করোনা পরীক্ষা নিশ্চিত করা হচ্ছে।

SARADINDU GHOSH 

Published by: Piya Banerjee
First published: August 29, 2020, 11:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर