হোম কোয়ারান্টিনে থাকা বাসিন্দার সংখ্যা বেড়েই চলেছে এই জেলায়! সতর্ক থাকুন

চিকিৎসকরা বলছেন, এই জেলায় প্রায় ৩ হাজার পুরুষ মহিলা হোম কোয়ারান্টিনে আছেন। সংখ্যাটা অনেক। তাই তারা যাতে কঠোর ভাবে হোম কোয়ারান্টিনে থাকেন তা নিশ্চিত করতে হবে।

চিকিৎসকরা বলছেন, এই জেলায় প্রায় ৩ হাজার পুরুষ মহিলা হোম কোয়ারান্টিনে আছেন। সংখ্যাটা অনেক। তাই তারা যাতে কঠোর ভাবে হোম কোয়ারান্টিনে থাকেন তা নিশ্চিত করতে হবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলার হোম কোয়ারান্টিনে থাকা পুরুষ মহিলার সংখ্যা আরও বাড়ল। তবে শনিবার সকাল পর্যন্ত নতুন করে কাউকে করোনা পরীক্ষার জন্য কলকাতা পাঠাতে হয়নি। এখন পর্যন্ত বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ১ জন ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাল থেকে ১ জনকে কলকাতা পাঠানো হয়েছে। শারীরিক পরীক্ষার পর এদিনও নতুন করে বেশ কয়েক জনকে হোম কোয়ারান্টিনে পাঠানো হয়েছে। বর্ধমান রেল স্টেশন, উল্লাস ও নবাবহাট বাসস্ট্যান্ড, কালনা ও কাটোয়ায় থার্মাল স্ক্রিনিং অব্যাহত রয়েছে। সেখানে সন্দেহ জনকদের নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর নেওয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এই জেলায় হোম কোয়ারান্টিনে ছিলেন ২৮ হাজার ৫৩৩ জন। এর পর নতুন করে আরও ১ হাজার ২৬৬ জনকে হোম কোয়ারান্টিনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। সব মিলিয়ে এই জেলায় এখন হোম কোয়ারান্টিনে থাকা পুরুষ মহিলার সংখ্যা ২৯ হাজার ৭৯৯ জন। ভারতের বাইরে থেকে এসে হোম কোয়ারান্টিনে রয়েছেন ২২৯ জন।

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিশেষ করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১ জন। কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন ৪ জন, কালনা মহকুমা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন ১ জন।

বর্ধমান রেল স্টেশন, বর্ধমানের উল্লাস ও নবাবহাট বাসস্ট্যান্ডে শারীরিক পরীক্ষা অব্যাহত রয়েছে। বর্ধমান রেল স্টেশনে ১ হাজার ৯০১ জনের শারীরিক পরীক্ষা হয়েছে। নবাবহাট বাসস্ট্যান্ডে পরীক্ষা হয়েছে ১৬১ জনের। উল্লাস বাসস্ট্যান্ডে ৬৯ জনের শারীরিক পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে জ্বরে আক্রান্ত রোগী মিলেছে ৮৩ জন। বেশির ভাগকেই হোম কোয়ারান্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, এই জেলায় প্রায় ৩ হাজার পুরুষ মহিলা হোম কোয়ারান্টিনে আছেন। সংখ্যাটা অনেক। তাই তারা যাতে কঠোর ভাবে হোম কোয়ারান্টিনে থাকেন তা নিশ্চিত করতে হবে। নচেৎ তাদের থেকে বহু মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: