ভাঙড়ে ধীরে ধীরে কমছে আন্দোলনের জোর, বাড়ছে দৈনন্দিন সমস্যা

ভাঙড়ে ধীরে ধীরে কমছে আন্দোলনের জোর, বাড়ছে দৈনন্দিন সমস্যা

গত মঙ্গলবারের সেই ভয়ঙ্কর স্মৃতিকে পিছনে ফেলে কার্যত স্বাভাবিক হতে চাইছে উত্তপ্ত ভাঙড়।

  • Share this:

# ভাঙড়: সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই শান্ত ভাঙড় ফিরছে দৈনন্দিন জীবনযাপনে ৷ এলাকায় পাওয়ার গ্রিড বন্ধের দাবীতে গত কয়েকদিন ধরেই সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার ভাঙড়ের নাম। গত মঙ্গলবার ভাঙড় ২ ব্লকের মাছিভাঙ্গা, টোনা ও খামারআইট গ্রামের মানুষ এলাকায় পাওয়ার গ্রিড বন্ধের প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে এলাকায় বিক্ষোভ আন্দোলন শুরু করেন।

সেই আন্দোলনকারীদের হটাতে এলে পুলিশ জনতা খণ্ড যুদ্ধে উত্তপ্ত হয় ভাঙড়। ঘটনায় মারা যান দুই গ্রামবাসী, আহত হন বহু। অন্যদিকে অন্তত চল্লিশজন পুলিশকর্মী আহত হন, পুড়িয়ে দেওয়া হয় পুলিশের একাধিক গাড়ি। ভাঙচুরও করা হয় বহু গাড়ি।

ঘটনার পর চারদিন কেটে গেলেও এখনও স্বাভাবিক হয়নি ভাঙড়ের এই গ্রামগুলি। তবে যত দিন যাচ্ছে ততই ফিকে হচ্ছে এই আন্দোলন। তবে একদিকে যখন এই গ্রামগুলির বেশিরভাগ মানুষ পাওয়ার গ্রিড বন্ধের দাবীতে অনড়, ঠিক সেই সময় নিহত আলমগীরের প্রতিবেশী কয়েকজন কিন্তু সাওয়াল করলেন পাওয়ার গ্রিডের পক্ষেই। ঘটনার পর যেখানে এলাকার বিভিন্ন রাস্তা ছিল কার্যত অবরুদ্ধ, পুরোপুরি না হলেও ক্রমেই অল্প স্বল্প গাড়ি ঘোড়া চলতে শুরু করেছে সেই রাস্তা দিয়ে।

পুরোপুরি রাস্তা অবরোধ না উঠলেও, ইট, কাঠ দিয়ে অবরোধ করা সেই রাস্তার ধার দিয়েই চলছে যাতায়াত। অন্যদিকে, ধীরে ধীরে দোকানপাট খোলা শুরু হয়েছে এলাকায়। ফলে গত মঙ্গলবারের সেই ভয়ঙ্কর স্মৃতিকে পিছনে ফেলে কার্যত স্বাভাবিক হতে চাইছে উত্তপ্ত ভাঙড়।

First published: 01:08:24 PM Jan 22, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर