• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • যাত্রী হবে না, এমন আশঙ্কায় শনিবারও বর্ধমানে পথে নামল না বেসরকারি বাস

যাত্রী হবে না, এমন আশঙ্কায় শনিবারও বর্ধমানে পথে নামল না বেসরকারি বাস

সোমবার থেকে বেশ কিছু বেসরকারি বাস পথে নামতে পারে বলে বাস মালিক সংগঠনগুলি সূত্রে জানা গিয়েছে।

সোমবার থেকে বেশ কিছু বেসরকারি বাস পথে নামতে পারে বলে বাস মালিক সংগঠনগুলি সূত্রে জানা গিয়েছে।

সোমবার থেকে বেশ কিছু বেসরকারি বাস পথে নামতে পারে বলে বাস মালিক সংগঠনগুলি সূত্রে জানা গিয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: শনিবারও পূর্ব বর্ধমান জেলায় বেসরকারি বাস পথে নামল না। আড়াই মাস লকডাউনের পর কলকাতা-সহ অন্য কয়েকটি জেলায় বেসরকারি বাস চলাচল শুরু হলেও পূর্ব বর্ধমান জেলায় এখনও বাসের চাকা গড়ায়নি। এদিন বর্ধমানের উল্লাস ও নবাবহাট বাস স্ট্যান্ড থেকে বেসরকারি বাস পথে নামেনি। বাস না থাকায় দুর্ভোগে নাজেহাল হতে হচ্ছে যাত্রীদের। আগামিকাল, রবিবার ছুটির দিনেও বাস থাকবে না বলে মনে করছেন যাত্রীরা। তবে সোমবার থেকে বেশ কিছু বেসরকারি বাস পথে নামতে পারে বলে বাস মালিক সংগঠনগুলি সূত্রে জানা গিয়েছে।

শুধু জেলার সদর শহর বর্ধমানেই নয়, বেসরকারি বাস না চলায় সমস্যায় পড়তে হয়েছে জেলার অন্যান্য অংশের বাসিন্দাদেরও। শুক্রবার কালনা বাস স্ট্যান্ড থেকে বাস চলাচল শুরু হয়েছিল। তবে শনিবার সেই বাস স্ট্যান্ড থেকে বাস চলেছে হাতেগোনা কয়েকটি। কাটোয়া মহকুমায় বেসরকারি বাস চলাচল শুরু হয়নি। কাটোয়া স্টেশনে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে পরিযায়ী শ্রমিকরা আসছেন। এইসব শ্রমিকদের বাড়ি পৌঁছনোর জন্য কাটোয়া বাস স্ট্যান্ডে বিশেষ শিবির তৈরি করেছে মহকুমা প্রশাসন। গুসকরা বাস স্ট্যান্ড থেকেও এদিন বাস চলাচল লক্ষ্য করা যায়নি।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় সড়ক পথে যোগাযোগের মূল মাধ্যম হল বেসরকারি বাস। জেলার বিভিন্ন রুটের পাশাপাশি বর্ধমান থেকে নদিয়া, মুর্শিদাবাদ বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, হুগলি, মেদিনীপুরের বাস চলাচল করে। প্রতিদিন ছশোরও বেশি বাস বর্ধমান শহরের ওপর দিয়ে চলাচল করে।সেই সব বাস চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। বাস মালিকরা বলছেন,বাস চলাচলের ওপর বেশ কয়েক হাজার কর্মীর জীবন জীবিকা নির্ভরশীল। আড়াই মাসের ওপর বাস চলাচল বন্ধ। ফলে নিদারুণ সংকটের মধ্যে রয়েছেন সকলেই। যত তাড়াতাড়ি বাস চলাচল স্বাভাবিক হবে ততই সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব হবে। কিন্তু এখন গ্রামীণ এলাকায় যাত্রী একেবারেই নেই। সে কারণেই লোকসানের বহর আরও বাড়বে ধরে নিয়েই বাস চালানোয় উৎসাহ দেখাচ্ছেন না অনেক বাস মালিকই। দু-একটি বাস চলাচল শুরু হয়েছিল। কিন্তু যাত্রী না হওয়ায় নিরাশ হয়ে তাঁরাও বাস চালানো বন্ধ করে দিয়েছেন। তবে সোমবার থেকে অনেক অফিস খুলবে। অনেক দোকান বাজার খুলবে। তাই যাত্রী কিছুটা বাড়বে ধরে নিয়ে অনেক বাস মালিক সেদিন থেকে বাস চলাচল শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: