corona virus btn
corona virus btn
Loading

দানে পাওয়া জয়দুর্গা, কালনার মুখোপাধ্যায়দের এই পুজো একেবারে অন্যরকম

দানে পাওয়া জয়দুর্গা, কালনার মুখোপাধ্যায়দের এই পুজো একেবারে অন্যরকম

আজও কালনার মুখোপাধ্যায় পরিবারের ঘরের মেয়ে।

  • Share this:

#কালনা: আহিরীটোলায় ঢাকের বোলে যখন পুজোয় মাতামাতি, এমন এক পুজো আছে, যেখানে ঢাক বাজে না। কালনার মুখোপাধ্যায় বাড়ি। বাজে না ঢাক । হয় না বিসর্জন। প্রথমে ছিল চট্টোপাধ্যায়দের পুজো। পরে পুজো হয়ে যায় মুখোপাধ্যায়দের। দানে পাওয়া জয়দুর্গা আজও কালনার মুখোপাধ্যায় পরিবারের ঘরের মেয়ে।

কেউ বলেন দানে পাওয়া দুর্গা...কারও মতে দুর্গা নিজেই আসতে চেয়েছিলেন বাড়িতে। মিথ যাই বলুক... কালনার মুখোপাধ্যায় বাড়িতে আজও জয়দুর্গা ঘরের মেয়ে.....

আগে জয়দুর্গার পুজো হত কালনার বালিবাজারে .....চট্টোপাধ্যায় পরিবারে। উমা ছিল তাঁদের বড় আদরের। ব্যবসায়ে মন্দার মধ্যেও মেয়ের যত্ন অক্ষুণ্ণ রাখতে চেয়েছিলেন চট্টোপাধ্যায়রা। উমার যত্নের ভার দেন পারিবারিক পূজারির হাতে। সেই শুরু। দানে পাওয়া জয়দুর্গার অনাদর করেননি পূজারি রামধন মুখোপাধ্যায়। পাথুরিয়ামহলের বাড়িতে জয়দুর্গা হয়েছে মুখোপাধ্যায়দের ঘরের মেয়ে।

জয়দুর্গার পুজোয় ঢাকের বাদ্যি নেই। আধুনিক বাজনাও নিষিদ্ধ। হয়না দশমী-পুজো। জয়দুর্গার বিসর্জন হয়না। দশমীতে শুধু কলাবউ বিসর্জনের নিয়ম। হয়ত ঘরের মেয়েকে কাছছাড়া করতে চায় না পরিবার। দশমীর পর থেকে ফের শুরু নিত্যপুজো।

ন’পুরুষের পুজোর বয়স প্রায় চারশ। একচালার সাবেকি প্রতিমা। টানা চোখ। এক ঝলকে মনে হয় পাথরের মূর্তি। আদতে শাড়ি, গয়না সবই মাটির।

পুজোর ক’দিন আত্মীয়-পরিজনের ভিড়ে প্রাণ ফেরে মুখোপাধ্যায়দের ঠাকুরদালান। হাসি, আড্ডা, খাওয়া-দাওয়ায় কেটে যায় সময়।

আগে পুজোর খরচ চালাতেন বর্ধমানের মহারাজা। এখন পুজোর দায়িত্ব পরিবারের সদস্যদেরই। মুখোপাধ্যায় বাড়ির আদরে-যত্নে ভালোই আছেন জয়দুর্গা.....

আরও দেখুন

First published: September 7, 2019, 11:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर