দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

কৌশিকী অমাবস্যাতেও আজ দূরেই ভক্তরা, করোনা আবহে খাঁ খাঁ করছে তারাপীঠ

কৌশিকী অমাবস্যাতেও আজ দূরেই ভক্তরা, করোনা আবহে খাঁ খাঁ করছে তারাপীঠ

তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় জানান, এ বছর ভক্তদের ছাড়া কৌশিকী অমাবস্যা পালন হবে এটা খুব কষ্টের। মা তারার পুজো নিয়ম এবং রীতি মেনেই হবে। শুধু সেবায়েতরা প্রবেশ করবে মন্দিরে এই কৌশিকী অমাবস্যাতে।

  • Share this:

#বীরভূম: তারাপীঠের কৌশিকী অমাবস্যা মানেই তো জনসমুদ্র,কোলাহল।রাস্তায় রাস্তায় পুলিশি টহল, ঘন ঘন মন্দিরের অফিস এবং পুলিশ ক্যাম্প থেকে ঘোষণা। যত্রতত্ৰ রাস্তার মোড়ে মোড়ে গজিয়ে উঠে স্বেচ্ছাসেবকদের অস্থায়ী আস্তানা। মুহুর্মুহু আকাশে উড়তে থাকে পুলিশ প্রশাসনের ড্রোন ক্যামেরা।রাস্তার মোড়ে মোড়ে উৎশৃঙ্খল মদ্যপ জনতার মুখে কর্কশ শব্দে শোনা যায় ‘জয় তারা...জয় তারা’। কিন্তু সেসব এ বছর আর নেই ৷ করোনা আবহে সব কিছুই বদলে গিয়েছে ৷

দেশজুড়ে করোনা আবহে কৌশিকী অমাবস্যায় বন্ধ রয়েছে তারাপীঠ মন্দির।শুধুমাত্র সেবায়েতরা মন্দিরে প্রবেশ করবেন। পূণ্যার্থীদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না এ বছর। তারাপীঠে কৌশিকী অমাবস্যার তাৎপর্য একটু আলাদা। কথিত আছে এই দিনটিতেই তারাপীঠের মহাশ্মশানে সাধক বামদেব মা তারার দর্শন পেয়েছিলেন। সাধক বামদেব সিদ্ধিলাভও করেন। তাই ওইদিন তারাপীঠে প্রতিবছর বিশেষ পুজোর আয়োজন করা হয়। বিগত দেড় দশকে এই কৌশিকী অমাবস্যায় কার্যত বাঁধ ভাঙা মানুষের ভিড় হয় তারাপীঠের বুকে। কোনও কোনও বছর ২ লক্ষ মানুষ পর্যন্ত আসেন পুজো দিতে। তবে এ বছর সেই প্রথায় ছেদ পড়ছে।

করোনার এই আবহে তারাপীঠের মন্দির কমিটি ও বীরভূম জেলাপ্রসাশন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভক্ত সমাগম ঠেকাতে ১২ অগাস্ট থেকে ২০ অগাস্ট মন্দির বন্ধ থাকবে। মঙ্গলবার সকাল ৯ টা ৪৬ মিনিট হইতে বুধবার সকাল ৮ টা ২২ মিনিট পর্যন্ত থাকবে অমাবস্যা তিথি। তারাপীঠে কৌশিকী অমাবস্যায় ভিড় সামাল দিতে কার্যত হিমসিম খেতে হয় বীরভূম জেলা পুলিশ প্রশাসনকে প্রতিবছর। অমাবস্যার প্রায় এক সপ্তাহ আগে থেকেই সেখানকার হোটেল ও লজগুলিতে পা রাখার জায়গা থাকত না। দেশের নানা প্রান্ত থেকে লক্ষ লক্ষ দর্শনার্থী ছুটে আসেন। এবার সেই পরিস্থিতি তৈরি হলে যে করোনার সংক্রমণ নিমেষে ছড়িয়ে পড়বে, তা বুঝতে পেরেই বীরভূম জেলা পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় জানান, এ বছর ভক্তদের  ছাড়া কৌশিকী অমাবস্যা পালন হবে এটা খুব কষ্টের। মা তারার পুজো নিয়ম এবং রীতি মেনেই হবে। শুধু সেবায়েতরা প্রবেশ করবে মন্দিরে এই কৌশিকী অমাবস্যাতে।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: August 18, 2020, 10:37 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर