• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • যাওয়া হল না একুশের সমাবেশে, তবে পাত পেড়ে ডিম-ভাত খাওয়ার সুযোগ ছাড়লেন না জেলার তৃণমূলকর্মীরা! 

যাওয়া হল না একুশের সমাবেশে, তবে পাত পেড়ে ডিম-ভাত খাওয়ার সুযোগ ছাড়লেন না জেলার তৃণমূলকর্মীরা! 

এবার একুশে জুলাই পালন হলেও করোনার কারণে ধর্মতলায় যাওয়া হয়ে ওঠেনি পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলীদের। তবে একুশের দিনে আজ কিন্তু "ডিম্ভাত" হাতছাড়া হয়নি জেলার তৃণমূল ছাত্র নেতা কর্মীদের।

এবার একুশে জুলাই পালন হলেও করোনার কারণে ধর্মতলায় যাওয়া হয়ে ওঠেনি পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলীদের। তবে একুশের দিনে আজ কিন্তু "ডিম্ভাত" হাতছাড়া হয়নি জেলার তৃণমূল ছাত্র নেতা কর্মীদের।

এবার একুশে জুলাই পালন হলেও করোনার কারণে ধর্মতলায় যাওয়া হয়ে ওঠেনি পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলীদের। তবে একুশের দিনে আজ কিন্তু "ডিম্ভাত" হাতছাড়া হয়নি জেলার তৃণমূল ছাত্র নেতা কর্মীদের।

  • Share this:

#পূর্ব মেদিনীপুর: ২১ শে জুলাই মানে যাদের কাছে ধর্মতলা আর মমতার জনসভা- ভাষণ। সেই তাদের কাছেই, অর্থাৎ  জেলা থেকে কলকাতায় যাওয়া তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের কাছে একুশে জুলাই মানে ফাঁকা আকাশের নিচে ময়দানে বসে "ডিম্ভাত" খাওয়া। সেই তাঁদেরই এবার কলকাতা যাওয়া হয়ে ওঠেনি।

এবার একুশে জুলাই পালন হলেও করোনার কারণে ধর্মতলায় যাওয়া হয়ে ওঠেনি পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলীদের। তবে একুশের দিনে আজ কিন্তু "ডিম্ভাত" হাতছাড়া হয়নি জেলার তৃণমূল ছাত্র নেতা কর্মীদের।সে তমলুক হোক কিংবা হলদিয়া। কিংবা মহিষাদল। এইসব অঞ্চলের তৃণমূল নেতা কর্মীরা, যারা প্রতি বছর আজকের দিন, অর্থাৎ ২১ জুলাই দলের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় যেমন যেতেন, তেমনই সঙ্গে রান্না খাওয়ারই নিয়ে যেতেন।

শাক সবজি সহ ডিম ভাত প্যাকেটে বেঁধেই নিয়ে যেত যারা, সেই তৃণমূল কর্মী এদিন দলীয় নেত্রীর বক্তৃতা শোনেন বড় পর্দায়। একুশের 'মেনু' মেনেই অবশ্য খাওয়া দাওয়াও করেন । যেখানে পাত পেড়ে ডিম ভাত রান্নার ব্যবস্থা করেছিলেন নিজেরাই। ভাষণ শোনার আগে আগেই যা সকলেই খেয়েছেন মন-পেট ভর্তি করেই এবং তা পূর্ব মেদিনীপুরে বসেই।

মহিষাদলের কুমুদিনী ডাকুয়া মঞ্চে এদিন মমতার ভার্চুয়াল সভায় বক্তব্য দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। পাশেই তারাচাঁদের ওপর ডিম ভাত রান্নার ব্যবস্থা দিয়েছিলেন মহিষাদল ব্লক তৃণমূল নেতৃত্ব।  তাদের ব্যবস্থাপনাতেই প্লেট ভর্তি জোড়া জোড়া ডিমের তরকারি খেলেন স্থানীয় তৃণমুল নেতা কর্মীরা। মিটিং এ যাওয়ার সুযোগ না পেয়ে মন খারাপের মাঝে ডিম ভাত খাওয়ার সুযোগ পেয়ে খুব খুশি হয়েছেন সকলেই।

SUJIT BHOWMIK

Published by:Elina Datta
First published: