বউভাতের আগে গরিবদের পাত পেড়ে খাওয়ালেন নতুন বউ, দিলেন শীত বস্ত্রও

বউভাতের আগে গরিবদের পাত পেড়ে খাওয়ালেন নতুন বউ, দিলেন শীত বস্ত্রও

অনন্য নজির সমর-সুস্মিতার

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: গতকালই বিবাহ বন্ধ আবদ্ধ হন। নব বধূ সবে ঘরে এসেছেন। এখোনও বউভাত হয়নি। তার আগেই দুঃস্থদের সঙ্গেই একপ্রস্থ বউভাত সেরে নিলেন নব দম্পতি। শিলিগুড়ির ডাবগ্রামের ঘটনা। গত ১৭ জানুয়ারি সাত পাঁকে বাধা পড়েন ডাবগ্রামের সমর এবং সুস্মিতা। আগামীকাল বউভাত। তার আগে নব দম্পতি এক অনন্য মানবিকতার নজির গড়লেন। পাত্র সমর মজুমদারের বাবার খুব ইচ্ছে ছিল এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজনের। দু'বছর আগে সমরবাবুর বাবা মারা গিয়েছেন। বাবার সেই স্বপ্ন শনিবার পেল বাস্তব রূপ। আর তাই বাবার ইচ্ছেপূরণ করতে পেরে খুশী সমরবাবু। পাত্রী সুস্মিতাদেবীও এমন আয়োজনে খুশী।

শনিবার দুপুর থেকেই ডাবগ্রামের মজুমদার বাড়িতে উপচে পড়ে ভিড়। যা প্রথমে পড়শীদের কিছুটা অবাকই করেছিল। নব দম্পতির বাড়িতে একে একে ভিড় জমান দুঃস্থ পরিবারের সদস্যরা। যাদের দু'বেলা খাবার প্রতিদিন জুটেনা। এমন আয়োজনে ডাক পেয়ে ওরাও খুশী। রীতিমতো প্যাণ্ডেল করে চেয়ার, টেবিলে বসিয়ে খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন করা হয়। কী ছিল মেনুতে? ভাত, ডাল, ভাজা, তরকারি, মাংস এবং চাটনি। আর শেষ পাতে রসগোল্লা এবং সন্দেশ। যাচাই করেই আওয়ায়ন করা হয় অতিথিদের। খাওয়া শেষে সকলের হাতে আবার তুলে দেওয়া হয় শীত বস্ত্র।

প্রায় ২০০জন দুঃস্থ মানুষ আমন্ত্রিত ছিলেন ডাবগ্রামের মজুমদার বাড়িতে। একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং পাড়ার কয়েকজনের দায়িত্বে ছিল দুঃস্থদের আমন্ত্রণ জানানো। এমন আমন্ত্রণে ডাক পাবেন, অনেকেই ভাবতেই পারেন নি। প্রথমে অবেকেই বিশ্বাস করতে পারেন নি। আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে বিয়ে বাড়িতে এসে নব দম্পতিকে আশির্বাদও করে যান তারা। এই আশির্বাদ নব দম্পতির আগামী দিনের চলার পথ আরো মসৃণ করবে। এই ধরনের উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন পাড়া পড়শীরাও। আগামীকাল আনুষ্ঠানিক বউভাত। তার আগে ডাবগ্রামের মজুমদার বাড়ির বিয়েতে নব দম্পতির অনন্য নজির শহরে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করলো বলে মনে করছে অনেকেই।

First published: January 18, 2020, 5:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर