দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

নৃশংস! ধান জমির মধ্যে কাকাকে ইট দিয়ে থেঁতলে খুন মদ্যপ ভাইপোর!

নৃশংস! ধান জমির মধ্যে কাকাকে ইট দিয়ে থেঁতলে খুন মদ্যপ ভাইপোর!
Representative Image

এলাকার বাসিন্দারা বলছেন, কাকা ভাইপোর মধ্যে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ থাকলেও তা বোঝা যায়নি।

  • Share this:

#বর্ধমান: সম্পত্তি নিয়ে বিবাদের জেরে পারিবারিক খুনোখুনির ঘটনা বেড়েই চলেছে পূর্ব বর্ধমান জেলায়। এবার তেমনই ঘটনা ঘটল বর্ধমান শহরে। মদ্যপ ভাইপোর হাতে খুন হলেন কাকা। ধান জমির মধ্যে ইট দিয়ে থেঁতলে খুন করা হয়।মৃতের নাম বিজয় বিশ্বাস। তাঁর বয়স ৫৬৷ অভিযুক্ত মহাদেব বিশ্বাসকে আটক করেছে পুলিশ।

বর্ধমান শহরের ২৪ নং ওয়ার্ডের উদয়পল্লী শিবপুকুরপাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে যায় বর্ধমান থানার পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বর্ধমান মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে তদন্তের প্রয়োজনে নমুনা সংগ্রহ করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন শুরু হোক লোকাল ট্রেন চলাচল, বাসে বাদুরঝোলা হয়ে আর চলছে না! বলছেন এরা সবাই...

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাতে ফুটবল খেলা দেখতে যাওয়ার নাম করে ঘর থেকে বের হয় বিজয় বিশ্বাস ও মহাদেব বিশ্বাস।উদয়পল্লী শিবপুকুরের পাড়ে তারা মদের আসরে মদ খান। এরপরই সম্পত্তি নিয়ে পুরনো বিবাদ নিয়ে বচসায় জড়িয়ে পড়েন তারা। বচসা চলাকালীন মহাদেব আচমকা ইট দিয়ে সজোরে বিজয় বিশ্বাসের মাথায় বেশ কয়েক বার আঘাত করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। ভোরে ধান জমি থেকে গোঙানির শব্দ শুনতে পেয়ে স্থানীয়রা বিজয় বিশ্বাসকে উদ্ধার করে বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

এলাকার বাসিন্দারা বলছেন, কাকা ভাইপোর মধ্যে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ থাকলেও তা বোঝা যায়নি। দুজনে একসঙ্গে ফুটবল খেলা দেখতে যাবার নাম করে ঘর থেকে বেরিয়েছিল। তারপর মদের আসরে বসে ভাইপো যে এভাবে নিজের কাকাকে নৃশংসভাবে খুন করবে তা আগাম টের পাওয়া যায়নি। বর্ধমান থানার পুলিশ জানিয়েছে, ঠিক কী ঘটনা ঘটেছিল, কেনইবা এমন নৃশংসভাবে বিজয় বিশ্বাস নামে ওই ব্যক্তিকে খুন করা হল, ঘটনাস্থলে আর কেউ উপস্থিত ছিল কিনা, তদন্তে সব দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযুক্তকে ইতিমধ্যেই আটক করা হয়েছে। তাকে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। আগাম পরিকল্পনা করেই এই খুন, নাকি মদের আসরে নেশার ঘোরে এমন ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে।

Published by: Pooja Basu
First published: October 12, 2020, 5:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर