Narendra Modi: 'বাংলার দই-মিষ্টির এত স্বাদ, দিদি এত তিক্ততা কোথায় পান?'

Narendra Modi: 'বাংলার দই-মিষ্টির এত স্বাদ, দিদি এত তিক্ততা কোথায় পান?'

মোদি এদিন সভার প্রথম থেকে টার্গেট করে নেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

মোদি এদিন সভার প্রথম থেকে টার্গেট করে নেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। 'দিদি ও দিদি' সুরে কয়েকবার ডেকে জনতাকে উচ্ছ্বসিত করার পাশাপাশি মোদি সাফ বুঝিয়ে দেন, বিজেপির জয় নিয়ে কতটা নিশ্চিত।

  • Share this:

    #তারকেশ্বর: তৃতীয় দফা ভোটের আগে বারবার বাংলায় ভোটপ্রচারে হাজির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শনিবারও রাজ্যের দুই জায়গায় সভা করলেন মোদি। প্রথমে হুগলির তারকেশ্বরে এবং পরে দ্বিতীয় সভা করবেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে। মোদি এদিন সভার প্রথম থেকে টার্গেট করে নেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। 'দিদি ও দিদি' সুরে কয়েকবার ডেকে জনতাকে উচ্ছ্বসিত করার পাশাপাশি মোদি সাফ বুঝিয়ে দেন, বিজেপির জয় নিয়ে কতটা নিশ্চিত।

    তারকেশ্বরের সভায় 'ব্যোম ভোলে' উচ্চারণ করে মমতাকে মোদির কটাক্ষ, 'দিদি ও দিদি, হার আপনার সামনে উপস্থিত। আপনি এটা মেনে নিন।' পাশাপাশি, নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে মমতার অভিযোগ করাকেও তুলোধনা করেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর কথায়, 'ক্রিকেটের মাঠে বার বার খেলোয়াড় আম্পায়ারকে প্রশ্ন করলে বুঝতে হবে খেলোয়াড়ের খেলায় খোট আছে। কখনও ইভিএম, কখনও নির্বাচন কমিশন, দিদির এত এত অভিযোগ। এবার বুঝতে হবে যে খেলা শেষ'।

    বার বার তৃণমূলনেত্রীর আক্রমণের শিকার হওয়ার বিজেপির পক্ষ থেকে মোদির প্রশ্ন, 'বাংলার দই-মিষ্টির স্বাদই আলাদা, এত তিক্ততা কোথা থেকে পান দিদি?' অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ভোটের প্রচারের প্রতিটি সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাজের খতিয়ান তুলে ধরতে রিপোর্ট কার্ডের কথা বলে থাকেন। এদিন নাম না করে অভিষেকের প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন মোদি। 'দিদির যত অস্থিরতা এই দশ বছরের রিপোর্ট কার্ড নিয়ে। পুরনো সমস্ত শিল্প বন্ধ হয়ে গিয়েছে, নেই কোনও নতুন শিল্পের সম্ভবনা।' কটাক্ষ করেন মোদি।

    মোদির দাবি, বিজেপির জনসভার লোকেরা টাকার লোভে যান বলে কটাক্ষ করেছিলেন মমতা। এদিন সেই কটাক্ষের জবাবও দেন মোদি। তাঁর কথায়, 'দিদি বলেন বিজেপির সভায় যাওয়ার জন্য টাকা দেওয়া হয়। বাঙালিদের আত্মসম্মান অনেক বেশি দিদি। এই মন্তব্য করে আপনি আসলে বাংলার মানুষকে অপমান করেছেন।'

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: