রামায়ণী গল্পে পুরুলিয়ায় জলকষ্ট মেটানোর আশ্বাস, মোদির চোখে ডবল ইঞ্জিন স্বপ্ন

রামায়ণী গল্পে পুরুলিয়ায় জলকষ্ট মেটানোর আশ্বাস, মোদির চোখে ডবল ইঞ্জিন স্বপ্ন

পুরুলিয়ার জনসভায় নরেন্দ্র মোদি। ছবি-ট্যুইটার

আশ্বাস দিলেন, ডবল ইঞ্জিন সরকার ক্ষমতায় এলে পুরুলিয়ায় জলসংকট দূর হবে।

  • Share this:

    #পুরুলিয়া: পুরুলিয়ার ভাঙরায় নির্বাচনী জনসভায় যোগ দিলেন নরেন্দ্র মোদি। রুক্ষ শুষ্ক, 'পিছিয়ে পড়া' এই জেলার মানুষের সামনে বক্তব্য রাখার সময় মোদির ফোকাস রইল, জল সংকট। আশ্বাস দিলেন, ডবল ইঞ্জিন সরকার ক্ষমতায় এলে পুরুলিয়ায় জলসংকট দূর হবে।

    বৃহস্পতিবার রাতেই এই সভা নিয়ে ট্যুইট করেন নরেন্দ্র মোদি। তিনি লেখেন, "পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে পরিবর্তনের আশা জেগেছে"। সেই পরিবর্তন কেমন? মোদির কথায়, তৃণমূল সিপিএম দুই সরকারই কথা রাখেনি। পিছিয়ে পড়া পুরুলিয়ার জন্য ভাববে তাদের সরকার।

    সীতাকুণ্ডের পৌরাণিক আখ্যান টেনে এনে নরেন্দ্র মোদি বলেন, "একদিন রাম সীতা জলের তেষ্টা মিটিয়েছে এই অঞ্চল। আর আজ এখানেই মানুষের জলের কষ্ট। মহিলাদের অনেক দূর যেতে হত জল আনতে। কম জলের জন্য চাষবাসেও সমস্যা হয়েছে। তৃণমূলকে নিশানা করে মোদি বলছেন, তৃণমূল পুরুলিয়াকে জলসংকটে ভরা জীবন দিয়েছে। পুরুলিয়ায় ভেদভাব দেখা গিয়েছে এই আমলেই।

    মোদির যুক্তি, দেশের সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া অঞ্চল হিসেবেই দেখা হয়েছে পুরুলিয়াকে। সেচের কাজ যা হওযার কথা ছিল হয়নি। তৃণমূলের দিকে আঙুল তুলে মোদি বললেন, "এরা যে ভাবে কাজ করে তাঁর প্রমাণ পুরুলিয়ারর জল সরবরাহ প্রজেক্ট। আট বছরেও কাজ হয়নি। সাহেববাঁধের অবস্থাও তথৈবচ।"

    বুধবার মধ্যরাত পর্যন্ত প্রার্থী বাছাইয়ের মিটিং চলেছে। ক্লান্তির লেশটুকুও ধরা পড়ল না মোদির চোখে মুখে। আত্মবিশ্বাসী সুরেই বললেন, ডবল ইঞ্জিন সরকার হলে, এখানে বিকাশ হবে। তৃণমূল নেত্রী উন্নয়নের ফিরিস্তি দিচ্ছেন প্রতিটি সভায়। তা উন্নয়ন নিয়েই কটাক্ষ করে মোদি বললেন, বছরের পর বছর একটাও সেতু তৈরি করতে পারল না। এখন বলছে উন্নয়নের কথা। আমি জঙ্গলমহলকে প্রতিশ্রুতি দিতে চাই বাংলায় ‌বিজেপির সরকার তৈরি করলে আপনাদের কষ্ট দূর হবে।

    ট্যুরিজম বা হস্তশিল্পের সম্ভাবনার কথা বললেও মোদির মূল পাখির চোখটা রইল জলেই। অন্য রাজ্যে নিজেদের সরকারের কাজের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলছেন, দেশের অন্য রাজ্যেও জলসংকট রয়েছে। আমরা জলসংকট দূর করতে হাজার হাজার কিলোমিটারের পাইপলাইন বসিয়েছি। সেখানে বহু ফসল চাষ করা যায়। এখানে বিকাশের বহু সম্ভাবনা রয়েছে।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর