দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই রাজনৈতিক সভা শুরু নন্দীগ্রামকে ঘিরে 

নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই রাজনৈতিক সভা শুরু নন্দীগ্রামকে ঘিরে 

নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই নন্দীগ্রামে সভা করতে চলেছেন তৃণমুল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

#কলকাতা: নতুন বছরের রাজনৈতিক উত্তাপ সেই নন্দীগ্রামকে ঘিরেই। পরপর সভা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও শুভেন্দু অধিকারীর। আর কার সভায় কত লোক হবে তা নিয়েই শুরু পারস্পরিক চাপানউতোর। তৃণমুলের নজরে এবার নন্দীগ্রাম।

নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই নন্দীগ্রামে সভা করতে চলেছেন তৃণমুল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমুল সূত্রে খবর, আগামী ৭ জানুয়ারি নন্দীগ্রামে গোকুলনগরের মাঠে তিনি সভা করবেন। ঠিক পরের দিন তেখালিতে পাল্টা জনসভা করবেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি নিজেই জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গের বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীকে জানিয়েছিলেন তিনি ৮ জানুয়ারি নন্দীগ্রামে সভা করতে চান। তাঁকে তাঁর দল বিজেপি সেই সভা করার অনুমতি দিয়েছে ৷ ২০০৭ সালের ৭ জানুয়ারি নন্দীগ্রামের গণ আন্দোলনে ৩ জনের মৃত্যু হয়। এই দিনটিকে স্মরণ করে প্রতি বছর স্মরণ অনুষ্ঠান করেন শুভেন্দু অধিকারী। এবার সেই একই দিনে নন্দীগ্রামের আন্দোলনকে স্মরণ করে সভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমুলের কো-অর্ডিনেটর অখিল গিরি জানিয়েছেন, "মুখ্যমন্ত্রী আসছেন সভা করতে। নন্দীগ্রামের সাথে তার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। তিনি ওই দিনটিকে বেছে নিয়েছেন আন্দোলনকারীদের স্মৃতিতে সম্মান জানিয়ে।" যদিও রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, সদ্য তৃণমুল ছেড়ে বিজেপি'তে গেছেন শুভেন্দু অধিকারী। ছেড়েছেন বিধায়ক পদ। নন্দীগ্রামের বিধায়ক ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। ফলে সেই নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা ঘিরে আগ্রহ তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

শুভেন্দু অধিকারী অবশ্য জানিয়েছেন, "নন্দীগ্রাম ভারতের মধ্যে একটা জায়গা। তাই মুখ্যমন্ত্রী সভা করতে আসতেই পারেন। তাঁকে তিনি বহিরাগত বলবেন না।" প্রসঙ্গত, গত বুধবারই শুভেন্দুর গড়ে সভা করেছে তৃণমুল কংগ্রেস। সেখানে একাধিক নেতা দাবি করেছেন, নন্দীগ্রাম আন্দোলন ছিল স্থানীয়দের। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই আন্দোলনে যোগ দিয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন। যার জেরে সাধারণ মানুষের কাছে পৌছে গিয়েছে এই আন্দোলন। কাঁথিতে দাঁড়িয়ে শুভেন্দুকে আক্রমণ করে সৌগত রায় বলেছেন, "মমতা না থাকলে নন্দীগ্রাম আন্দোলন হত না। নন্দীগ্রাম আন্দোলন সুফিয়ানের মতো স্থানীয় নেতারা করেছেন। কোনো সরস্বতীর বরপুত্র এসে সুন্দর দেখতে মানুষ এসে আন্দোলন করেননি।"

এখন সেই আন্দোলন ভূমিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি বলেন সে দিকেই চেয়ে রাজনৈতিক মহল। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সূত্রে খবর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা সফল করতে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই লক্ষ্যে আগামী রবিবার তমলুকের নিমতৌড়িতে দলের সব বিধায়ক, জেলার বিভিন্ন পদাধিকারী, ব্লক সভাপতিদের নিয়ে প্রস্তুতি সভা করা হবে। যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা ঘিরে শিশির অধিকারী বা অধিকারী পরিবার ব্রাত্য থাকছেন বলে সূত্রের খবর।

আবীর ঘোষাল

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: December 25, 2020, 2:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर