মমতার চোটে বরফ দিয়েছিলেন, রাতারাতি ভাগ্য বদল নন্দীগ্রামের সেই দোকানির

মমতার চোটে বরফ দিয়েছিলেন, রাতারাতি ভাগ্য বদল নন্দীগ্রামের সেই দোকানির

মমতাকে সাহায্য করেই ভাগ্য বদল

গত বুধবার সন্ধ্যেবেলা নন্দীগ্রামের বিরুলিয়া বাজারে কর্মসূচি পড়ার সময় আচমকা পায়ে চোট পান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

#নন্দীগ্রাম: বরফেই বদলে গেল ভাগ্য! একেবারে নগদ ৫০০০ টাকার পুরস্কার। আচমকা এই পুরস্কার পেয়ে আহ্লাদে আটখানা নন্দীগ্রাম বিরুলিয়া বাজারে মাইতি মিষ্টির দোকানের মালিক নিমাই বাবু। গত বুধবার সন্ধ্যেবেলা নন্দীগ্রামের বিরুলিয়া বাজারে কর্মসূচি পড়ার সময় আচমকা পায়ে চোট পান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পায়ে চোট লাগার ঘটনাটি ঘটে মাইতি মিষ্টান্ন ভান্ডারের ঠিক সামনে। যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকা দিদিকে দেখে তড়িঘড়ি দোকানে ফ্রিজে থাকা বরফ বের করে দেন নিমাই মাইতি। মুহুর্তের মধ্যে বরফ জোগাড় হওয়াতে যন্ত্রণা থেকে কিছুটা মুক্তি পান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৎক্ষণাৎ সেখান থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে কলকাতায় নিয়ে চলে যাওয়া হয়। তাই মিষ্টির দোকানের কর্ণধার বরফ দিয়ে সাহায্য করলেও প্রিয় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার সুযোগই পাননি। বৃহস্পতিবার সকাল পিকে মাইতি মিষ্টির দোকানে সংবাদমাধ্যমের ভীড় উপচে পড়ে ছিল। মুখ্যমন্ত্রীর চোট পাওয়ার ঘটনাটি কিভাবে ঘটেছিল তা জানতেই নিমাইবাবু কে সারাদিন প্রশ্ন করে গেছেন সাংবাদিকরা। লক্ষ্মীবারে সংবাদমাধ্যমে বারবার ঘটনার বিবরণ দিতে দিতে কিছুটা বিরক্ত হয়ে পড়েছিলেন নিমাই মাইতি। সন্ধ্যেবেলা কিছুটা বিরক্ত কাটাতেই লটারির টিকিট কাটেন। মুখ্যমন্ত্রীর নাম করেই টিকিটটা কেটে ছিলেন।

প্রিয় দিদিকে বরফ দেওয়ার পর এতবার টেলিভিশনের পর্দায় বহুবার গিয়েছিল নিমাইবাবুকে। রাতারাতি তিনি যেন সেলিব্রিটি বনে গিয়েছিলেন। তাই নিজের ভাগ্যের পরীক্ষা নিজে করতেই লটারি টিকিট কেটেছিলেন নিমাই মাইতি। অতীতে এই অভ্যাস থাকলেও সেভাবে পুরস্কার না মেলায় টিকিট কাটা ছেড়েই দিয়েছিলেন হালফিলে। শুক্রবার যেন মিরাক্কেল ঘটে গেল। আচমকা নিমাই মাইতি ভাগ্য খুলে গেল। এক টাকা দু টাকা নয় গুনে গুনে 5000 টাকার পুরস্কার জিতলেন মাইতি মিষ্টান্ন ভান্ডারের মালিক। নিমাইবাবু নিজেই বলছেন, দিদিকে বরফ দিয়েই তার ভাগ্য ফিরেছে। তাই লটারি পুরস্কার খরচ করবেন না তিনি। এই 5 হাজার টাকা কী করবেন? নিমাইবাবুর স্পষ্ট জবাব, দিদি ফের মুখ্যমন্ত্রী হলেই এই টাকায় নন্দীগ্রামের প্রত্যেক মানুষকে মিষ্টি খাওয়াবো।

Published by:Suman Biswas
First published:

লেটেস্ট খবর