• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Bengal Bjp: বঙ্গ বিজেপি-কে চরম বিড়ম্বনায় ফেললেন অশোক চক্রবর্তী! কে এই ব্যক্তি, কী করলেন?

Bengal Bjp: বঙ্গ বিজেপি-কে চরম বিড়ম্বনায় ফেললেন অশোক চক্রবর্তী! কে এই ব্যক্তি, কী করলেন?

বিজেপি-কে বিড়ম্বনায় ফেলে পদত্যাগ

বিজেপি-কে বিড়ম্বনায় ফেলে পদত্যাগ

Bengal Bjp: ২০১৯ সালের ১৪ ডিসেম্বর অশোক চক্রবর্তীকে নদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার সভাপতি করা হয়। সেদিন থেকে থেকে বর্তমান সময়কাল পর্যন্ত জেলা সভাপতি তিন তিনবার পদত্যাগপত্র জমা দিলেন।

  • Share this:

    #শান্তিপুর: নদিয়ার শান্তিপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের ফল ঘোষণার ২১ দিনের মাথায় নির্বাচনে পরাজয়ের দায় শিকার করে বিজেপির নদিয়া দক্ষিণ জেলার সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিলেন অশোক চক্রবর্তী।

    ২০১৯ সালের ১৪ ডিসেম্বর অশোক চক্রবর্তীকে নদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার সভাপতি করা হয়। সেদিন থেকে থেকে বর্তমান সময়কাল পর্যন্ত জেলা সভাপতি তিন তিনবার পদত্যাগপত্র জমা দিলেন। যদিও আগের দু'দফার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেনি রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। ২৩ নভেম্বর মঙ্গলবার নতুন করে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন অশোক চক্রবর্তী। এই পদত্যাগ দেওয়া নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল কংগ্রেস।

    আরও পড়ুন: দিলীপ ঘোষের কাছে 'ভিক্ষা', সুকান্ত মজুমদারের 'স্বাগত'! সব নজর দিল্লিতে

    পদত্যাগ প্রসঙ্গে অশোক চক্রবর্তীর সাফাই, শান্তিপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে দল প্রত্যাশিত ফলাফল করতে পারেনি। দলীয় জেলা সভাপতি হিসেবে তার দায় নিয়ে নেওয়া। সেই দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই পদত্যাগ করা। দলীয় কোনো কারণ নেই। অশোক চক্রবর্তী পদত্যাগ প্রসঙ্গে নদিয়া রানাঘাট জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর দীপক বসু কটাক্ষ করে বলেন, ''এর আগেও অশোক চক্রবর্তী তিন-চারবার পদত্যাগের নাটক করেছিলেন। শান্তিপুরে লজ্জাজনকভাবে হারার জন্য বিধানসভা ভোটে বিজেপি জয়লাভ করেছিল ১৬ হাজার ভোটে। তার ঠিক ৫ মাসের মাথায় সেই আসনে উল্টে ৬৪ হাজার ভোটে হেরেছে। শুধু শান্তিপুরের আসন নয় খড়দহ, দিনহাটা, গোসাবা এই চারটে আসনেই গোহারা হেরেছে। তাহলে ওদের চারটে জেলার সভাপতিকেই পদত্যাগ করতে হয়। এবং রাজ্যের সভাপতিকেও পদত্যাগ করতে হয়। সবে শুরু, এরপর পৌরসভা নির্বাচন তখন একে একে ওদের পদত্যাগ করতে করতে সবই সারা হয়ে যাবে। কেউ আর থাকবে না।''

    আরও পড়ুন: ডিসেম্বরেই বঙ্গ BJP-তে বিরাট রদবদল, রাজ্য কমিটিতে থাকছে বড় চমক!

    অন্যদিকে রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার এই প্রসঙ্গে কোন মন্তব্য করতে চাননি।বিজেপি জেলা সভাপতির পদত্যাগ ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক সমালোচনা আলোচনা, একইসঙ্গে বিড়ম্বনা বাড়ছে বিজেপি-র।

    ---রঞ্জিত সরকার

    Published by:Suman Biswas
    First published: