দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দল ঐক্যবদ্ধ রাখতে ম্যারাথন বৈঠক তৃণমূল জেলা নেতৃত্বে মুর্শিদাবাদে

দল ঐক্যবদ্ধ রাখতে ম্যারাথন বৈঠক তৃণমূল জেলা নেতৃত্বে মুর্শিদাবাদে

দাদার অনুগামী বলে যে পোস্টার পড়েছিল তা ছিড়ে ফেলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর ফেস্টুন লাগানোর জন্য বলা হয়েছে।

  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ : দাদার অনুগামীদের আটকাতে বিশেষ  সক্রিয় হল তৃণমূলের জেলা নেতৃত্ব। মঙ্গলবার জেলা পরিষদের কমিউনিটি হলে জেলা পরিষদের সদস্য, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি, বিধায়ক ও কো-অর্ডিনেটররা দীর্ঘ বৈঠক করলেন।  শুভেন্দু অধিকারী বিজেপি তে যোগদান করার পর যাতে দল ঐক্যবদ্ধ থাকে সেই কারণে ম্যারাথন বৈঠক করে তৃণমূল নেতৃত্ব।

প্রসঙ্গত মুর্শিদাবাদ জেলায় পর্যবেক্ষক হিসেবে শুভেন্দু অধিকারী প্রায় পাঁচ বছর দায়িত্বে ছিলেন। স্বাভাবিকভাবেই অনেক নেতৃত্বের সঙ্গে তার সুসম্পর্ক রয়েছে। কিছুদিন আগেই জেলা পরিষদের  কর্মাধ্যক্ষ  মফিজউদ্দিন মন্ডলের স্মরণসভায় শুভেন্দু অধিকারী এসেছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেনের উদ্যোগে। এই নিয়ে রাজ্য রাজনীতি তোলপাড় হয়। এরপরই রাজ্য সরকার তার নিরাপত্তারক্ষী তুলে নেয়। যদি শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করার পর বেশ কয়েকজন জেলা পরিষদ সদস্য বিজেপির পথে পা বাড়াতে পারে বলে রাজনৈতিক মহলের জল্পনা। তবে এদিনের সভার মধ্যে বেশ কয়েকজন জেলা পরিষদ সদস্য জেলা পরিষদের কাজকর্ম নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তৃণমূলের জেলা সভাপতি আবু তাহের খান বলেন,জেলা  পরিষদ কি কি উন্নয়নমূলক কাজ করেছে তার রিপোর্ট কার্ড তৈরি করে সাধারণ মানুষকে তা জানানো হবে। আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে আছি।

দাদার অনুগামী বলে যে পোস্টার পড়েছিল তা ছিড়ে ফেলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর ফেস্টুন লাগানোর জন্য বলা হয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেন বলেন, শুভেন্দু অধিকারী দীর্ঘদিন ধরে এই জেলার পর্যবেক্ষক ছিলেন। স্বাভাবিকভাবেই অনেকের সঙ্গে তার সম্পর্ক ভালো। তবে যেহেতু তিনি বিজেপিতে যোগদান করেছেন এখন আমাদের  নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করব। তৃণমূলের জেলা কো-অর্ডিনেটর সৌমিক হোসেন বলেন, শুভেন্দু অধিকারী দলের পর্যবেক্ষক' থাকার সময় দলের মধ্যে একাধিক বিভাজন তৈরি হয়েছিল। বর্তমানে সকলে যাতে একসাথে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করে সেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমাদের একমাত্র নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকলকে মনে রাখতে হবে।

Pranab Kumar Banerjee

Published by: Debalina Datta
First published: December 23, 2020, 7:50 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर