Home /News /south-bengal /
Murshidabad: মুর্শিদাবাদের লালবাগে ক্লোরিন গ্যাস সিলিন্ডার লিক, গুরুতর অসুস্থ ১৪

Murshidabad: মুর্শিদাবাদের লালবাগে ক্লোরিন গ্যাস সিলিন্ডার লিক, গুরুতর অসুস্থ ১৪

গ্যাসের তীব্রতা এতটাই ছিল যে আশেপাশের গাছপালার রঙ-ও হলুদ হয়ে যায়

  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ: মুর্শিদাবাদের লালবাগের রেজিস্ট্রি অফিসের পাশে সেমিনার হল এলাকায় একটি জলের ট্যাঙ্ক ছিল। পিএইচই-র জায়গায় অবস্থিত সেই ট্যাঙ্ক সোমবার ভাঙার কাজ করছিলেন জনাকয়েক শ্রমিক। জলের ট্যাঙ্ক ভাঙার পরে জেসিবি মেশিন দিয়ে মাটি খোঁড়ার কাজও চলছিল। হঠাৎই সেই সময়ে একটি ক্লোরিন গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে লিক করতে থাকে গ্যাস, তা ছড়িয়ে পড়তেই ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা এলাকা। তীব্র ঝাঁঝালো গন্ধে গলা বুক জ্বলতে থাকে স্থানীয় বাসিন্দাদের। এরপরই শুরু হয় বমি ও শ্বাসকষ্ট।

প্রথমে বুঝতে না পারলেও পরে স্থানীয়দের চোখে পড়ে একটি সিলিন্ডার থেকে ধোঁয়ার মত গ্যাস লিক করছে। গ্যাসের তীব্রতা এতটাই ছিল যে আশেপাশের গাছপালার রঙ-ও হলুদ হয়ে যায়। অসুস্থ হয়ে পড়ে জীবজন্তুরাও। বাড়ি থেকে বাচ্চাদের দূরে খোলা মাঠে নিয়ে যাওয়া হয়। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ১৪জনকে লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্ক ছড়ায় এলাকাবাসীদের মধ্যে।

স্থানীয় বাসিন্দা মহাদেব মাহান্ত বলেন, '' প্রথমে একটা তীব্র ঝাঁঝালো গন্ধ অনুভব করি। তারপরই গলা বুক জ্বালা করতে শুরু করে। এরপরেই আমরা সকলে মিলে আশেপাশে খোঁজাখুঁজি শুরু করে দেখতে পাই একটি সিলিন্ডার থেকে ধোঁয়ার মত গ্যাস লিক করছে। তড়িঘড়ি দমকলে খবর দেওয়া হয়, অসুস্থদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।''  স্থানীয় বাসিন্দা প্রীতি হালদার বলেন, '' হঠাৎ করে অ্যাসিডের মতো একটা ঝাঁঝালো গন্ধে গলা-বুক জ্বলে ওঠে। আমরা বাড়িতে থাকতে পারছিলাম না। তারপরই জানতে পারি, গ্যাস লিক করেছে। দেখছি বাগানের সব গাছগুলোর রং পর্যন্ত হলুদ হয়ে গিয়েছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।'

ভাল্ব অপারেটর সুরজ শেখ বলেন, '' গত ৩ বছর ধরেই  এই জায়গায় ক ক্লোরিন গ্যাসের সিলিন্ডারটি পড়েছিল। আগে পরিশ্রুত জল তৈরি করার জন্য ব্যবহার করা হত। অসাবধানতাবশত সিলিন্ডারটি লিক হয়ে যাওয়ায় এই বিপত্তি ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান লালবাগ পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান মেহিদী আলম মির্জা। অসুস্থদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করার ব্যবস্থা করেন। তিনি বলেন, '' খবর পাওয়া মাত্র আমি ছুটে আসি। গ্যাসের তীব্রতা এতটাই ছিল যে আমাদের গোটা শরীর জ্বালা করছিল। কোনওরকমে অসুস্থদের উদ্ধার করে  হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে। তবে কীভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হবে।''

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Murshidabad

পরবর্তী খবর