দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আবহের মধ্যেই জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে বর্ধমানে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে পৌর উৎসব !

করোনা আবহের মধ্যেই জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে বর্ধমানে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে পৌর উৎসব !

করোনা আবহের মধ্যেই এবার আয়োজিত হতে চলেছে বর্ধমান পৌর উৎসব। ২৩ থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত উৎসব চলবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনা আবহের মধ্যেই এবার আয়োজিত হতে চলেছে বর্ধমান পৌর উৎসব। আগামী ২৩ জানুয়ারি বর্ধমানের উৎসব ময়দানে এই অনুষ্ঠানের সূচনা হবে। ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত উৎসব চলবে। এবারের বর্ধমান উৎসবের শুভ সূচনা করবেন বিশিষ্ট শিল্পী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়। থাকবেন দেব শংকর হালদার। বর্ধমান পৌর উৎসব উপলক্ষে এখন শহরজুড়ে প্রস্তুতি তুঙ্গে।

প্রতিবছরই একটি বিশেষ থিমকে সামনে রেখে বর্ধমান পৌর উৎসব উদযাপিত হয় সেই বিষয়ের উপর বিশেষ প্যাভেলিয়ান থাকে উৎসব ময়দানে ।  কমিটির এবারের বর্ধমান পৌর উৎসবের থিম-জন্ম কর্ম্ম বর্ধমানে, ঠাই পেয়েছে সবার মনে। অর্থাৎ বর্ধমানের নাম উজ্জ্বল করা প্রথিতযশাদের সম্মান জানাতেই এই থিম বেছে নেওয়া হয়েছে।

বর্ধমান পৌর উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ জমজমাট সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রতিদিনই  ময়দানের প্রধান মঞ্চে সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থাকছে। ২৫ জানুয়ারি বিশিষ্ট  সঙ্গীত শিল্পী অঞ্জন দত্তের উপস্থিত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। ২৭ জানুয়ারি সঙ্গীত পরিবেশন করবেন ইমন চক্রবর্তী। ২৮ জানুয়ারি মূল শিল্পী হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রুপঙ্কর। ২৯ জানুয়ারি সঙ্গীত পরিবেশন করবেন নচিকেতা। ৩০ জানুয়ারি থাকবেন লোপামুদ্রা। ৩১ জানুয়ারি অর্থাৎ উৎসবের শেষ দিনে উপস্থিত থাকবে বাংলা ব্যান্ড ক্যাকটাস।

বর্ধমান পৌরসভার এক্সিকিউটিভ অফিসার অমিত কুমার গুহ বলেন, "প্রতিবারই নামী শিল্পীদের সঙ্গে বর্ধমান শহরের শিল্পীরাও মঞ্চ ভাগ করেন। এবারও সেই রীতি বজায় থাকছে। বিভিন্ন দিন নাচে গানে অংশগ্রহণ করবেন তাঁরা।"

তিনি জানান, ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এবারও বর্ধমান পৌর উৎসবের আয়োজন করা হলেও তাতে সতর্কতার সঙ্গে কোভিড বিধি মেনে চলা হবে। সেই জন্য এবার উৎসবে স্টলের সংখ্যা কমানো হয়েছে। গতবছর বর্ধমান পৌর উৎসবে ১৭৫ টি স্টল ছিল। এবার স্টলের সংখ্যা কমে ১৬০ টি হচ্ছে। এর ফলে উৎসব কমিটি আর্থিক দিক দিয়ে কিছুটা হলেও লোকসানের মুখ দেখবে। তবুও করোনা পরিস্থিতির কথা ভেবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উৎসব ময়দানে প্রবেশ করার সময় মাস্ক বা ফেস কভারে মুখ ঢাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। প্রবেশ পথের মুখে থাকবে স্যানিটাইজার টানেল। বর্ধমান পৌর উৎসব কমিটি সেই স্যানিটাইজারের খরচ বহন করবে। এবার বর্ধমান পৌর উৎসবের ৫০লক্ষ টাকা বাজেট ধরা হয়েছে।

অন্যান্য বারের মতো এবারও বর্ধমান পৌর উৎসব উপলক্ষে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা থাকছে। থাকবে ক্রিকেট, ফুটবল সহ বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। থাকছে বর্ধমান পৌর নাট্য উৎসব। বর্ধমান শহরের বিভিন্ন নাট্য সংস্থা সেই উৎসবে অংশ নেবে। এছাড়াও  এবার যাত্রার আয়োজন করা হয়েছে। উৎসবের দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ ২৪ জানুয়ারি সেই যাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।

Saradindu Ghosh

Published by: Piya Banerjee
First published: January 5, 2021, 9:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर