‘মায়ের তো উচিত সব সন্তানকে স্নেহ করা’, মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ রাজীবের

‘মায়ের তো উচিত সব সন্তানকে স্নেহ করা’,  মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ রাজীবের
বুধবার বিকেলে রঘুনাথগঞ্জের অজগরপাড়ায় বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার বিকেলে রঘুনাথগঞ্জের অজগরপাড়ায় বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

    Pranab Kumar Banerjee

    #বহরমপুর: ‘‘মা তার তিন সন্তানকে খুব ভালবাসেন। অন্য দুই সন্তানকে দেখেন না। মায়ের তো উচিত সব সন্তানকেই সমানভাবে স্নেহ করা।  মা সন্তানদের দায়িত্ব নিয়ে লালন-পালন করেন এ কথা অস্বীকার করার উপায় নাই । এটাও ঠিক মা যখন অসুস্থ হয়ে যাবে সন্তানরা তাঁকে দেখবে এটাই বাস্তব। কিন্তু মা যখন তিন সন্তানকে ভালবাসবে অন্য দুই সন্তানকে দূরে ঠেলে ফেলে দেবেন, সেই দুই সন্তান তখন কী করবে আপনারাই বলুন। ওই দুই সন্তানের মান অভিমান আছে। মায়ের তো উচিত সব ছেলে কে সমান ভাবে দেখা উচিত। সেই সন্তানরা যখন অন্য কিছু করবে তখনই তাঁরা কুসন্তান হয়ে যাবে। আর অন্যরা হবে সুসন্তান। আপনার দলে থাকলে ঠিক। অন্যদল করলেই তখন বেঠিক’’- বুধবার বিকেলে রঘুনাথগঞ্জের অজগরপাড়ায় বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

    মঙ্গলবার বহরমপুরের স্টেডিয়াম মাঠে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলত্যাগী দের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন। ২৪ ঘন্টার মধ্যেই সেই মুর্শিদাবাদের মাটিতেই পাল্টা দলনেত্রীর উদ্দেশ্যে এই কথা বলেন রাজিব।  সরকার ছিল। আমরা বেরিয়ে গিয়েছি। আপনার দল ও থাকবে না, সরকার থাকবে না এটুকু বলে দিতে পারি। দেওয়াল লিখন হয়ে গেছে। শুধু সময়ের অপেক্ষা। বিজেপি আসবে। সংখ্যালঘু অধ্যুষিত জেলায় দাঁড়িয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, হিন্দু-মুসলিমের বিভেদ এই তৃণমূল সরকার করেছে। যদি সত্যিই আন্তরিক হতেন তাহলে উন্নয়ন হত দুই সম্প্রদায়ের। তা কিন্তু হয়নি। শুধুমাত্র ব্যবহার করে গিয়েছেন।


    এ দিন দুয়ারে সরকার নিয়ে কটাক্ষ করেন রাজীব। বলেন, দুয়ারের সরকারের যদি এত মানুষ যায় তাহলে কোন উন্নয়ন করেনি এতদিন। ভোটের আগে হঠাৎ করে মনে পড়েছে মানুষের কাজ করতে হবে। পাড়ায় পাড়ায় সমস্যার সমাধান আগে করেননি। সেই সমস্যাকে গুরুত্ব দেননি। এখন দশ বছর পর হঠাৎ করে আপনার মনে পরল।  এদিনের সভায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও শীলভদ্র দত্ত ও উত্তর মুর্শিদাবাদ জেলার সভাপতি সুজিত ঘোষ উপস্থিত ছিলেন।

    Published by:Simli Raha
    First published: