corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিরল ঘটনায় কেঁপেছে সোশ্যাল মিডিয়া ! কনকনে শীতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা জলে নেমে স্নান

বিরল ঘটনায় কেঁপেছে সোশ্যাল মিডিয়া ! কনকনে শীতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা জলে নেমে স্নান
প্রতীকী ছবি ৷

বিদ্যুতের গতিতে ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

  • Share this:

Supratim Das

#বক্রেশ্বর: বড়দিনে চার্চে যাওয়া কেক খাওয়া তো আছেই, কিন্তু সকাল সকাল ঘন্টার পর ঘন্টা জলে নেমে স্নান এর মজাই আলাদা। ঘন্টার পর ঘণ্টা স্নানে নেমে মজার কথা শুনলে শীতকালে কেমন কেমন যেন লাগে তাইনা ? কিন্তু বীরভূমের বক্রেশ্বর উষ্ণ প্রস্রবণে রকমই শুরু হয়েছে আজ বড়দিনের সকাল সকাল।

দূর-দূরান্ত থেকে আসা পর্যটকরা সকাল থেকে নেমে রয়েছেন জলে, ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে স্নান করে যাচ্ছেন, কেউ উঠতে চাইছেন না জল থেকে। বীরভূমের বক্রেশ্বরে রয়েছে উষ্ণপ্রস্রবণ যেখানে বেশ কয়েকটি রয়েছে কুন্ড রয়েছে। শীতল কুন্ড যেমন রয়েছে, রয়েছে অগ্নিকুণ্ডও। এখানে ৩৫ ডিগ্রি থেকে শুরু করে ১০৪ ডিগ্রি তাপমাত্রা পর্যন্ত জলের আলাদা আলাদা প্রাকৃতিক জলের কুন্ড রয়েছে। এখানে স্নান করার জায়গা রয়েছে পর্যটকদের জন্য।

মহিলা এবং পুরুষদের জন্য আলাদা আলাদা স্নানের ব্যাবস্থা করেছে বক্রেশ্বর উন্নয়ন পর্ষদ। স্নান করার পর বক্রেশ্বর শিব মন্দিরে পূজো দেন পর্যটকরা। বক্রেশ্বর সতীপীঠ সংগে শক্তিপীঠও। কথিত আছে মায়ের দুই ভ্রুর মাঝখানের - মন - পড়ে ছিল এখানে। শুধু বড় দিনই নয় শীতের এই সময়টাতে বক্রেশ্বরের থাকে পর্যটকদের ভীড়। কারণ সকাল হোক বা বিকেল গরম জলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা নেমে স্নানের মজা আনন্দই আলাদা জানিয়েছেন পর্যটকরা।

রাজ্যের বাইরে থেকেও বিভিন্ন পর্যটকরা মন্দিরে পুজো দিতে আসেন। বিজ্ঞানিদের মতে এই অঞ্চলের ভূপৃষ্ঠের নীচের প্লেট সরে যাওয়ায়, এই অঞ্চলে হিলিয়াম গ্যাস বেরোয়, হিলিয়াম গ্যাসের জন্য প্রাকৃতিক গরম জলের উৎস তৈরি হয়েছে এখানে ।

First published: December 25, 2019, 9:48 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर