Mithun Chakraborty: ৬ মাসেই বদলে যাবে বাংলা! 'আসল পরিবর্তনের' ইঙ্গিত পেয়েছেন বিজেপির মিঠুন

Mithun Chakraborty: ৬ মাসেই বদলে যাবে বাংলা! 'আসল পরিবর্তনের' ইঙ্গিত পেয়েছেন বিজেপির মিঠুন

পরিবর্তন দেখতে পারছেন 'মহাগুরু'

গত ২৫ মার্চ প্রথম বার বিজেপির হয়ে ভোটপ্রচারে নেমেছিলেন 'ফাটাকেষ্ট'। তারপর এদিন ফের ইন্দাস, চন্দ্রকোনা, কেশপুর থেকে ডেবরায় রোড শো করেন মিঠুন।

  • Share this:

    #কেশপুর: রাজনৈতিক জীবনে নানা শিবিরের কাছাকাছি পৌঁছেছেন তিনি। ছিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদও। সেই মিঠুন চক্রবর্তী এখন বিজেপি নেতা। নরেন্দ্র মোদির ব্রিগেড সমাবেশে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়া ইস্তক মিঠুন বলে চলেছেন, 'এই দলটাই গরিবের জন্য ভাবে। এবার বাংলাতে আদতেই পরিবর্তন হবে।' গত ২৫ মার্চ প্রথম বার বিজেপির হয়ে ভোটপ্রচারে নেমেছিলেন 'ফাটাকেষ্ট'। তারপর এদিন ফের ইন্দাস, চন্দ্রকোনা, কেশপুর থেকে ডেবরায় রোড শো করেন মিঠুন। আর তারই মাঝে বলে দেন, 'এতদিনে কোনও পরিবর্তন হয়নি বাংলায়। কিন্তু এবার হবে। সোনার বাংলা হবে।'

    সেইসঙ্গেই তিনি সংযোজন করে দেন, 'এবার পরিবর্তন হবে, সোনার বাংলা হবে, ৬ মাসের মধ্যে বাংলার উন্নতি হবে।' প্রথম দফার ভোটের পরই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দাবি করেছেন, প্রথম দফার ৩০ আসনের মধ্যে ২৬ আসন পাবে বিজেপি। এরপরই মিঠুনও বলেন, 'প্রথম দফার ভোট দেখেই বোঝা যাচ্ছে সরকার বদলাচ্ছে।'

    তবে, জল্পনা থাকলেও তিনি যে বিজেপির প্রার্থী হচ্ছেন না, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন বাঙালি সুপারস্টার। কেন তিনি প্রার্থী হচ্ছেন না, তার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেছেন, 'প্রার্থী হলেই আমি স্বার্থপর হয়ে যাব।' অর্থাৎ, মিঠুনের প্রার্থী হওয়ার জল্পনায় একপ্রকার জল পড়েই গিয়েছে। কিন্তু বিজেপি চাইছে গ্রাম বাংলার ভোটে মিঠুনের মুখকে কাজে লাগাতে। সেই কারণেই গত ২৫ মার্চ থেকে মিঠুনকে পথে নামিয়েছে বিজেপি।

    গত ২৫ মার্চ, প্রথম দিন প্রচারে বেরিয়েই মানুষের আগ্রহ দেখে মিঠুন বলেছিলেন, 'তোমাদের এই ভালোবাসার কথা আমি সবসময়ই বলি। বাংলার মানুষের সঙ্গে আমার হিরো আর ভক্তের সম্পর্ক নয়। আমাদের মধ্যে আত্মার সম্পর্ক, হৃদয়ের সম্পর্ক। বাংলার সব গরিব মানুষের জন্য লড়তে এসেছি। বাংলার সব মানুষকে তাঁদের অধিকার দিয়েই ছাড়ব। এটা আমার প্রতিশ্রুতি। আর সেই কারণে সবার আশীর্বাদ কামনা করছি।'

    এদিনও চারটি রোড শোয়ে ব্যাপক ভিড় হয়েছিল মিঠুনকে দেখাতে। তাঁকে দেখতে উপচে পড়ে ভিড়। কাতারে কাতারে মানুষ। কারও মাথায় আবির, কারও মুখে মুখোশ। মিঠুনও তাঁদের দেখে উৎফুল্ল হয়ে পড়েন।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    লেটেস্ট খবর