corona virus btn
corona virus btn
Loading

ধারালো অস্ত্র-সহ জোর করে সাংসদের বাড়িতে ঢুকে অশ্রয় নেয় দুষ্কৃতীরা

ধারালো অস্ত্র-সহ জোর করে সাংসদের বাড়িতে ঢুকে অশ্রয় নেয় দুষ্কৃতীরা
Representational Image

সাংসদের স্ত্রীর কাছ থেকে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। দুষ্কৃতীকে স্থানীয়দের হাত থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

  • Share this:

#ঝাড়গ্রাম: ধারালো অস্ত্র-সহ জোর করে সাংসদের বাড়িতে ঢুকে অশ্রয় নেয় দুষ্কৃতীরা। এর জেরে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে সাংসদের পরিবার। জানা গিয়েছে ধারলো অস্ত্র দিয়ে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা করার পর তারা সোজা ঢুকে যায় ঝাড়গ্রামের বর্তমান বিজেপির সাংসদ কুনার হেমব্রমের বাড়িতে। সাংসদ বাড়িতে না থাকায় সেই সময় কোনও নিরাপত্তারক্ষী ছিল না । পরে উত্তেজিত জনতা কোনওক্রমে সাংসদের বাড়ি থেকে তাদের বের করে বেধড়র মারধর করে।

সাংসদের স্ত্রীর কাছ থেকে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। দুষ্কৃতীকে স্থানীয়দের হাত থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঘটনার সূত্রপাত গত কয়েকদিন আগে থেকেই। ঝাড়গ্রামের ভরতপুর এলাকার দুষ্কৃতী বলে পরিচিত বিশ্বজিৎ তিওয়ারি ও রাজেশ তিওয়ারি। দুই ভাইয়ের তান্ডবে নাজেহাল এলাকাবাসী। কয়েকদিন আগেই নিজের স্ত্রীকে মেরে হাত পা ভেঙে দেয় বিশ্বজিৎ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিন সে ও তার ভাই প্রতিবেশী দীনবন্ধু মাহাত এবং তার স্ত্রীর উপর চড়াও হয়। সেই সময় ধারাল অস্ত্র দিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে দেয় দীনবন্ধুকে । স্ত্রীয়ের চিৎকারে এলাকার লোকজন চলে এলেসাংসদের বাড়িতে ঢুকে লোকানোর চেষ্টা করে। এরপরই সাংসদদের গোটা বাড়ি ঘিড়ে ধরে এলাকাবাসীরা। সাংসদের স্ত্রীকে ঢাল করে বাঁচতে চেষ্টা করে রাজেশ। সাংসদের পরিবারের যাতে কোনও ক্ষতি না করে তাই বুঝিয়ে বাইরে আনা হয়। তার পর শুরু হয় গনধোলাই। তবে সাংসদের স্ত্রীর ফোন পেয়ে বিশাল বাহিনী এলাকায় পৌঁছে গণপিটুনির হাত থেকে উদ্ধার করে আটক করা হয়েছে।

First published: September 24, 2019, 6:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर