ফের রেললাইন ধরে হাঁটছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা, তাদের আটক করে সরানো হল লাইন থেকে

রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, রেল লাইন হাঁটা বা ঘুমানোর জায়গা নয়। এখন যাত্রীবাহী ট্রেন না চললেও, পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করছে। ফলে যে কোনও সময় দূঘটনা ঘটতে পারে। তাই সবাইকেই সচেতন করা হচ্ছে।

রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, রেল লাইন হাঁটা বা ঘুমানোর জায়গা নয়। এখন যাত্রীবাহী ট্রেন না চললেও, পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করছে। ফলে যে কোনও সময় দূঘটনা ঘটতে পারে। তাই সবাইকেই সচেতন করা হচ্ছে।

  • Share this:

#খড়গপুর: ঔরঙ্গবাদ থেকে শিক্ষা নিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের সরানো হল রেল লাইন থেকে। এবার এই ঘটনা ঘটল দক্ষিণ পূর্ব রেলের খড়গপুর ডিভিশনের বেলদা, হলদিপাতা স্টেশনের কাছে। রেল রক্ষী বাহিনী ও লাইনে কাজ করার সময় এই সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের নজরে আসে রেল কর্মীদের। দ্রুত লাইন থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাদের। স্টেশন এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয় ৩০ জন পরিযায়ী শ্রমিকদের। তারপর রেলের তরফ থেকেই তাদের খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়। যোগাযোগ করা হয় স্থানীয় থানার সঙ্গে। তারপর তাদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করা হয়।

দক্ষিণ পূর্ব রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, ২৬ জন পরিযায়ী শ্রমিক তাদের ব্যাগ পত্তর নিয়ে রেল লাইন ধরে হেঁটে যাচ্ছিলেন রবিবার সকালে। তারা যাচ্ছিলেন খড়গপুরের দিকে হেঁটে। শনিবার সন্ধ্যাতেও নজরে আসে বেলদার কাছে ১৪ জন পরিযায়ী শ্রমিক তারাও হেঁটে যাচ্ছেন। দুটি জায়গাতেই প্রথমে মনে করা হয়েছিল গ্রামবাসীরা যাতায়াত করছেন। পরে রেল কর্মীদের কাছাকাছি আসতেই নজরে আসে এরা বাইরে থেকে আসছেন। রেল রক্ষী বাহিনীকে দেখে প্রথমে ভয় পেলেও, আর পি এফ ও লাইনে নজরদারির দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা তাদের বুঝিয়ে লাইন থেকে সরিয়ে নিয়ে যান।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায়, এরা প্রত্যেকেই কাজের জন্য ওড়িশায় থাকতেন। লকডাউনের জেরে কাজ হচ্ছে না। এমনকি প্রতি দিনের খাবার অবধি তাদের জুটছে না। এই অবস্থায় তারা সিদ্ধান্ত নেন বাড়ি ফিরবে। রাস্তা ধরে হাঁটলে পুলিশের নজরে পড়লে তারা বাড়ি ফিরতে পারবেন না এই আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল তাদের মধ্যে। তাই রেল লাইন ধরে তারা হাঁটা শুরু করেন। তারা ভেবেছিলেন এখানে কেউ তাদের দেখতে পাবেন না। যদিও শেষমেশ তাদের আটকে দেন রেল কর্মীরা।

রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, রেল লাইন হাঁটা বা ঘুমানোর জায়গা নয়। এখন যাত্রীবাহী ট্রেন না চললেও, পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করছে। ফলে যে কোনও সময় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই সবাইকেই সচেতন করা হচ্ছে। নানা উপায়ে প্রচার চালানো হচ্ছে। তার পরেও অনেকে যে ভাবে রাস্তার বদলে রেল লাইন ধরে হেঁটে যাচ্ছেন তাতে চিন্তায় রয়েছে রেল প্রশাসন। দক্ষিণ পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ জানিয়েছেন, "প্রচারে জোর দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আমরা লোকো পাইলটদের নজর রাখতে বলেছি। আমাদের কর্মীরা নজর রাখছেন লাইনগুলিতে।" কিন্তু এত কিছুর পরেও পরিযায়ী শ্রমিকদের লাইন ধরে হাঁটা আটকানো যাচ্ছেনা।

Published by:Pooja Basu
First published: