আঙুলের ডগার সমান গীতা! অবাক সৃষ্টি ইছাপুরের বৃদ্ধের

আঙুলের ডগার সমান গীতা! অবাক সৃষ্টি ইছাপুরের বৃদ্ধের

2 মিলিমিটার বাই 4 মিলিমিটার সাইজের এই গীতা খালি চোখে পড়া অসম্ভব। অথচ লেন্স লাগিয়ে খুব সহজেই পড়া যায়। 

  • Share this:

#ইছাপুর: আকারে ২ মিলিমিটার বাই ৪ মিলিমিটার৷ মানে এক আঙুলের ডগার সমান৷ দীর্ঘদিন ধরেই এত ছোট গীতা বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিচ্ছেন ইছাপুরের মাইক্রো আর্টিস্ট মুকুল সিনহা৷ একটা, দু'টো নয়৷ ৪ হাজারেরও বেশি মাইক্রো গীতা বানিয়ে ফেলেছেন তিনি৷

শুরুটা হয়েছিল প্রায় ২২ বছর আগে৷ তখন ইছাপুর গান ফ্যাক্টরির কর্মী ছিলেন মুকুল সিনহা৷ মেয়ের বইখাতা বাঁধাইয়ের দায়িত্ব ছিল তাঁর কাঁধে৷ একদিন বই বাঁধতে বাঁধতেই মাথায় খেলে যায় বুদ্ধিটা৷ তারপর যেমন ভাবনা, তেমন কাজ৷ তৈরি করে ফেলেন নিজের হাতে তৈরি প্রথম মাইক্রো গীতা৷  ৯৫ পাতার বইটি আসল গীতার সম্পূর্ণ সংস্করণ৷ তার বাঁধন ও কারুকার্যে বৃদ্ধের যত্নের ছোঁয়া স্পষ্ট৷ তবে এত ছোট গীতা খালি চোখে পড়া সম্ভব নয়৷ ম্যাগনিফাইং গ্লাস ব্য়বহার করে পড়তে হয়৷

'ফ্যাক্টরির কাজ সামলে রাত পর্যন্ত নিজের সৌখিন কাজে মেতে থাকতাম।চাকরি থেকে অবসরের পরও পুরোদস্তুর গীতা লেখার কাজে সময় কাটে৷' কথাগুলো বলার সময়ে চোখ চিকচিক করে উঠল বছর পঁয়ষট্টির মুকুল সিনহার৷ নেশা এমনই যে, বাড়িতেই ছোটখোট মিউজিয়াম তৈরি করে ফেলেছেন৷

ইছাপুরে পরিচিত মুখ মুকুল সিনহা৷ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তাঁর কাজের প্রদর্শনী হয়েছে৷ তাঁর তৈরি মাইক্রো গীতা রয়েছে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতেও৷ অনেক সমস্য়া সত্ত্বেও বাকি জীবনটা মাইক্রো আর্ট নিয়ে পড়ে থাকতে চান ইছাপুরের মুকুল সিনহা৷ সৃষ্টি করতে চান নতুন কিছু৷

First published: February 1, 2020, 8:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर